কানাডায় IELTS ছাড়াই স্কলারশিপ; উচ্চশিক্ষার নতুন গন্তব্য চীন, জাপান, তুরস্ক, কোরিয়া ও জার্মানি

IELTS ছাড়াই কানাডায় স্কলারশিপ; উচ্চশিক্ষার নতুন গন্তব্য চীন, জাপান, তুরস্ক, কোরিয়া ও জার্মানি

কানাডায় IELTS ছাড়াই স্কলারশিপ; উচ্চশিক্ষার নতুন গন্তব্য চীন-জাপান, তুরস্ক, কোরিয়া ও জার্মানি

যেসব দেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ সংস্কৃতি, বন্ধুসুলভ পরিবেশ ও বিশ্বখ্যাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য পরিচিতি সেসব দেশের মধ্যে কানাডা অন্যতম। প্রতিবছর কয়েক হাজার শিক্ষার্থী কানাডায় পাড়ি দেয় উচ্চশিক্ষা অর্জন এবং অভিবাসী হওয়ার উদ্দেশ্যে।

অন্যান্য দেশের মতো কানাডার বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়ে আইইএলটিএস বা অন্যান্য ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষায় ভালো ফলাফল থাকা আবশ্যকীয় শর্ত থাকে। তবে দেশটির নামকরা ৫টি বিশ্ববিদ্যালয় বিদেশি শিক্ষার্থীদের স্বপ্ন পূরণের পথ সুগম করতে আইইএলটিএস ছাড়াই স্কলারশিপ অফার করে থাকে।

How to Apply Online for 2023-2024; LIVE, WORK AND STUDY IN CANADA

How to Apply Online (2023-2024) for; LIVE, WORK AND STUDY IN CANADA

Canada is the top most welcoming countries for Students from around the world. Living, working and studying in Canada is a dream for many people. However, you have already been able to make it happen and […]

কার্লটন বিশ্ববিদ্যালয়

কানাডার অটোয়াতে অবস্থিত কার্লটন বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ২০০টিরও বেশি প্রোগ্রাম, যার মধ্যে বেশ কয়েকটি কানাডার অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্বতন্ত্র। বিশ্ববিদ্যালয়টি ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের এনট্রান্স স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও গ্র্যাজুয়েটের আওতায় বছরে ১ হাজার থেকে ১৬ হাজার কানাডিয়ান ডলার পর্যন্ত ফান্ড দেয়। এই স্কলারশিপে ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষা বা আইইএলটিএসের ফলাফলের প্রয়োজন পড়ে না।

বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রাম

কার্লটন বিশ্ববিদ্যালয়ে গণিত, বিজ্ঞান, সঙ্গীত, কম্পিউটার সায়েন্স, পাবলিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড পলিসি ম্যানেজমেন্ট, সোশ্যাল ওয়ার্ক, মিডিয়া প্রোডাকশন অ্যান্ড ডিজাইন, সাংবাদিকতা ও মানবিক, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস, অর্থনীতি, ইঞ্জিনিয়ারিং, ইনফরমেশন টেকনোলজি, গ্লোবাল অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল স্টাডিজ, হেলথ সায়েন্স, ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন, কমিউনিকেশন অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ, ব্যবসায়, কগনিটিভ সায়েন্স, এগ্রিকালচারাল স্টাডিজ, ব্যাচেলর অব আর্টস প্রোগ্রামে পড়াশোনার সুযোগ রয়েছে।

আবেদনের যোগ্যতা

অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থী হতে হবে।

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট হলে একাডেমিক ফলাফল কমপক্ষে গড়ে ৮০ শতাংশ এবং গ্র্যাজুয়েট হলে ১০ থেকে ১২ থাকতে হবে (সিজিপিএ হিসেবে)।

ফুল টাইম আন্ডারগ্র্যাজুয়েট বা গ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]

স্কলারশিপের জন্য ভিন্ন কোনো আবেদনপত্রের প্রয়োজন নেই। আবেদনকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক আবেদন এবং ডকুমেন্ট জমা দিলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্কলারশিপের জন্য মনোনীত হবে। এ ক্ষেত্রে ফল টার্মের জন্য ১লা মার্চ এবং উইন্টার টার্মের জন্য ১৫ নভেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে হবে।

আবেদন বিষয়ে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করতে পারেন

কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়

কানাডার মন্ট্রিলের কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণাভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে খ্যাত। এখানে রয়েছে ৫০০টিরও বেশি প্রোগ্রাম। যার মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের জন্য ১০০টির বেশি আন্ডারগ্র‍্যাজুয়েট ও ১০০টির বেশি গ্র‍্যাজুয়েট প্রোগ্রাম। বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন ধরনের স্কলারশিপ অফার করে থাকে। যার মধ্যে অসাধারণ একাডেমিক ফলাফলধারী ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের জন্য এক্সিলেন্স অ্যান্ড ডিস্টিঙ্কশন স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। যা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিউশন ফি কভার করার পাশাপাশি এবং জীবনযাত্রার ব্যয়ের জন্য উপবৃত্তির সুবিধা প্রদান করে। এই স্কলারশিপের জন্য ভাষাগত দক্ষতা পরীক্ষার প্রয়োজন নেই।

বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রাম

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও গ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামে জীববিজ্ঞান, গণিত, রসায়ন, ইতিহাস, দর্শন, ব্যবসায় প্রশাসন, কম্পিউটার প্রকৌশল, কম্পিউটার বিজ্ঞান, যোগাযোগ, অর্থনীতি, ইংরেজি, ফিন্যান্স, ডিজাইন, মানবিক, সাংবাদিকতা, ব্যবস্থাপনা, পদার্থবিদ্যা ইত্যাদি বিষয়ে পড়া যাবে।

আবেদনের যোগ্যতা

অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থী হতে হবে।

একাডেমিক ফলাফল কমপক্ষে গড়ে ৮০ শতাংশ থাকতে হবে (সিজিপিএ হিসেবে)।

কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট বা গ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

2023-2024 Global Jobs and Scholarships

How to Apply for 2023-2024 Global Jobs

How to Apply for 2023-2024 Global Jobs Searching for and applying to jobs abroad can be an intimidating task. Here are 4 useful steps to follow in order to find and secure work abroad. By Colin […]

আবেদনকারী কনকর্ডিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্কলারশিপের জন্য মনোনীত হবে। স্কলারশিপের জন্য ভিন্ন কোনো আবেদনপত্রের প্রয়োজন নেই। পরবর্তীতে নির্দেশনা মোতাবেক প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিতে হবে। এ ক্ষেত্রে ফল টার্মের জন্য ১লা মার্চ এবং উইন্টার টার্মের জন্য ১লা নভেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে হবে।

এখানে আবেদনের বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে

ইউনিভার্সিটি অব উইনিপেগ

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব উইনিপেগ পাবলিক গবেষণাভিত্তিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছে। অন্যান্য সুবিধার পাশাপাশি এখানে শিক্ষার্থীদের অ্যাওয়ার্ড, বৃত্তি, স্কলারশিপ, পুরস্কারের মাধ্যমে একাডেমিক সফলতার জন্য আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়। যার মধ্যে ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে যেকোনো আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, গ্র্যাজুয়েট বা ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রামে কানাডার ইউনিভার্সিটি অব উইনিপেগ প্রেসিডেন্ট স্কলারশিপ ফর ওয়ার্ল্ড লিডারস নামে স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। এই স্কলারশিপের জন্য ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষার প্রয়োজন নেই এবং এটি টিউশন ফি কভার করার পাশাপাশি থাকার খরচ বহনের জন্য ফান্ড দেয়।

বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রাম

ইউনিভার্সিটি অব উইনিপেগ আর্টস, বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিকস, এডুকেশন, সায়েন্স, কিনেসিওলোজি অ্যান্ড অ্যাপ্লাইড হেলথ- এই ৫টি অনুষদে ৩-৪ বছর মেয়াদে অনার্স ব্যাচেলর প্রোগ্রাম অফার করে। এ ছাড়া অ্যাপ্লাইড অ্যান্ড জয়েন্ট প্রোগ্রাম এবং প্রি-প্রফেশনাল স্ট্রিমে মেডিসিন, আইন, ডেন্টিস্ট্রি অ্যান্ড অপটোমেট্রি বিষয়ে অধ্যয়নের সুযোগ দেয়।

আবেদনের যোগ্যতা

অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থী হতে হবে।

একাডেমিক ফলাফল কমপক্ষে গড়ে ৮০ শতাংশ থাকতে হবে (সিজিপিএ হিসেবে)।

ইউনিভার্সিটি অব উইনিপেগে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, গ্র্যাজুয়েট বা ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

আবেদনকারীকে ইউনিভার্সিটি অব উইনপেগের আবেদনপত্র পূরণ করে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জমা দিতে হবে। প্রেসিডেন্ট স্কলারশিপ ফর ওয়ার্ল্ড লিডারস স্কলারশিপের জন্য আলাদা আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে এবং নির্দেশনা মোতাবেক রচনা ও রেফারেন্স লেটার জমা দিতে হবে। আবেদনের শেষ সময় ১লা জুন।

আবেদনের যাবতীয় বিষয় সম্পর্কে জানা যাবে এখানে

ইউনিভার্সিটি অব সাসকাচেওয়ান

কানাডার ইউনিভার্সিটি অব সাসকাচেওয়ান বিশ্ব নেতৃত্বে আলাদা জায়গা দখল করে আছে। বিশ্বের নানা অস্থিতিশীল পরিস্থিতিতে এই বিশ্ববিদ্যালয় রেখেছে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা। ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের জন্য যেকোনো আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, গ্র্যাজুয়েট বা গবেষণাভিত্তিক প্রোগ্রামে এই বিশ্ববিদ্যালয় ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড নামে স্কলারশিপ প্রদান করে। এ ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের ভালো একাডেমিক ফলাফল থাকতে হবে এবং ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষার স্কোর প্রয়োজন পড়বে না।

বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রাম

ইউনিভার্সিটি অব সাসকাচেওয়ানে হিসাববিজ্ঞান, অ্যাডভান্সড ভেটেরিনারি অ্যান্ড ডায়াগনিস্টিক প্যাথলজি, এগ্রিকালচারাল ইকোনমিকস, অ্যানাটমি, ফিজিওলজি অ্যান্ড ফার্মাকোলজি, অ্যানিমেল অ্যান্ড পোল্ট্রি সায়েন্স, নৃবিজ্ঞান, অ্যাপ্লাইড কম্পিউটিং, অ্যাপ্লাইড ইকোনমিকস, অ্যাপ্লাইড মাইক্রোবায়োলজি, প্রত্নবিদ্যা, অর্থনীতি, আইন, জীববিজ্ঞান, ব্যবসায় প্রশাসন, রসায়ন, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, কম্পিউটার সায়েন্স, ইংরেজি, ফিন্যান্স, মার্কেটিং, ভূতত্ত্ব, ইতিহাস, গণিত, দর্শন, মনোবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে পড়া যাবে।

আবেদনের যোগ্যতা

অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থী হতে হবে।

একাডেমিক ফলাফল কমপক্ষে গড়ে ৮০ শতাংশ থাকতে হবে (সিজিপিএ হিসেবে)।

ইউনিভার্সিটি অব সাসকাচেওয়ানে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট, গ্র্যাজুয়েট বা গবেষণাভিত্তিক প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

আবেদনকারীর ইউনিভার্সিটি অব সাসকাচেওয়ানের আবেদনপত্রের ওপর ভিত্তি করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্কলারশিপের জন্য বিবেচনা করায় ভিন্ন কোনো আবেদনপত্রের প্রয়োজন পড়ে না। এ ক্ষেত্রে ১লা ডিসেম্বরের মধ্যে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের জন্য অন্যান্য বিষয়াদি জানতে যেতে হবে এখানে

ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া

ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া কানাডার অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের থেকে বেশ অনন্য। বিশেষত এই বিশ্ববিদ্যালয়টি এমবিএ প্রোগ্রামের জন্য খ্যাত। এখানকার আন্ডারগ্র‍্যাজুয়েট ও গ্র‍্যাজুয়েট প্রোগ্রামের বেশিরভাগ প্রোগ্রামই সেরার তালিকায়। ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থীদের নেতৃত্ব দক্ষতা ও একাডেমিক সাফল্যের ওপর ভিত্তি করে ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়া ইন্টারন্যাশনাল লিডার অব টুমোরো অ্যাওয়ার্ড নামক স্কলারশিপ অফার করে। এতে ভাষাগত দক্ষতার পরীক্ষার দরকার হয় না। এটি টিউশন ফি কভারের পাশাপাশি জীবনযাত্রার ব্যয় বহনের জন্য ফান্ড দেয়।

বিষয়ভিত্তিক প্রোগ্রাম

আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও গ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামে বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিকস, এডুকেশন, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি, হেলথ অ্যান্ড লাইফ সায়েন্স, ইতিহাস, আইন ও রাজনীতি, গণিত, রসায়ন ও পদার্থবিজ্ঞান, ল্যাঙ্গুয়েজ অ্যান্ড লিঙ্গুয়েস্টিকস, মিডিয়া অ্যান্ড ফাইন আর্টস, পিপল, কালচার অ্যান্ড সোসাইটি, আর্থ, এনভায়রনমেন্ট অ্যান্ড সাস্টেনেবিলিটি বিভাগে বিভিন্ন বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে।

আবেদনের যোগ্যতা

অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল শিক্ষার্থী হতে হবে।

একাডেমিক ফলাফল কমপক্ষে গড়ে ৮০ শতাংশ থাকতে হবে (সিজিপিএ হিসেবে)।

ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়ার আন্ডারগ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে হবে।

আবেদন প্রক্রিয়া

আবেদনকারীকে ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়ার আবেদনপত্র পূরণ করে প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট জমা দিতে হবে। ইন্টারন্যাশনাল লিডার অব টুমোরো অ্যাওয়ার্ড স্কলারশিপের জন্য আলাদা আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে এবং নির্দেশনা মোতাবেক রচনা ও রেফারেন্স লেটার ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে জমা দিতে হবে।

আবেদন বিষয়ে বিস্তারিত জানতে পারেন এখানে

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের উচ্চশিক্ষার নতুন গন্তব্য কেন তুরস্ক, কোরিয়া ও জার্মানি

বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা এত দিন উচ্চশিক্ষার জন্য যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া ও কানাডার মতো ইংরেজিভাষী দেশগুলোকে বেছে নিচ্ছিলেন। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় চীন, জাপান, তুরস্ক, দক্ষিণ কোরিয়া ও জার্মানির মতো ভিন্ন ভাষার দেশগুলোর প্রতিও আগ্রহী শিক্ষার্থীরা। কারণ হিসেবে শিক্ষার্থীরা বলছেন, এসব দেশে ভাষাগত সমস্যা থাকলেও বৃত্তির (স্কলারশিপ) সুযোগ বেশি। টিউশন ফির সঙ্গে থাকা–খাওয়ার খরচও অপেক্ষাকৃত কম। আর পড়াশোনা শেষে অনেক দেশে কাজেরও সুযোগ থাকে। দেশগুলো সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক—

জাপান

উচ্চশিক্ষার জন্য একসময় বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের অন্যতম পছন্দের দেশ ছিল জাপান। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় এ ধারা আরও বেড়েছে। জাপানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিজ্ঞান, প্রকৌশল, সামাজিক বিজ্ঞান, মেডিকেল, সাহিত্য, ব্যবসা প্রশাসন, পরিবেশসহ যেকোনো বিষয়ে ডিগ্রি, স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করছেন বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা। দেশটিতে স্নাতক ডিগ্রির মেয়াদ বিষয়ভেদে চার থেকে ছয় বছর। স্নাতকোত্তর ডিগ্রির মেয়াদ দুই বছর এবং পিএইচডি বিষয়ভেদে তিন থেকে চার বছর সময় লাগে। জাপানে শিক্ষার্থীদের জন্য স্কলারশিপের সুযোগ রয়েছে। স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে স্কলারশিপের পরিমাণ তুলনামূলকভাবে বেশি। মেক্সট স্কলারশিপ ছাড়া এডিবি-জাপান স্কলারশিপ, জাপান-বিশ্বব্যাংক বৃত্তি দেয় জাপান। এসব বৃত্তির আওতায় শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি, ভর্তি ফি, থাকা-খাওয়া-যাতায়াতের খরচ, বই কেনা, হাতখরচ, চিকিৎসা ভাতা, এমনকি জাপানে আসার বিমানভাড়াও অন্তর্ভুক্ত থাকে অনেক সময়। স্কলারশিপ পেতে দেশটির সরকারি ওয়েবসাইট ও পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে নিয়মিত নজর রাখতে পারেন আগ্রহী শিক্ষার্থীরা। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা দেশটিতে সপ্তাহে সাধারণত ২৮ ঘণ্টার মতো কাজ করার সুযোগ পান। এ ক্ষেত্রে জাপানি ভাষা জানাটা জরুরি। স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে ইংরেজি ভাষায় পাঠ্যক্রম থাকায় জাপানি ভাষা না জানলেও সমস্যা নেই। তবে স্নাতকের জন্য ভাষা শিখতেই হয়।

তুরস্কের সরকারি–বেসরকারি সব বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের পড়ার সুযোগ রয়েছে। স্কলারশিপের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও টিউশন ফি, এক বছরের তুর্কি ভাষা কোর্স ফি, থাকা–খাওয়া, স্বাস্থ্যবিমা, মাসিক ভাতা, প্রথমবার যাওয়া ও পড়ালেখা শেষ করে দেশে ফেরার বিমান টিকিটের টাকা পাওয়া যায়।

চীন

উচ্চশিক্ষার জন্য বাংলাদেশের অনেক শিক্ষার্থীর অন্যতম প্রিয় গন্তব্য এখন চীন। দেশটির শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে রয়েছে সিনহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পিকিং ইউনিভার্সিটি, ফুদান ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি ইন চায়না, ঝেজিয়াং ইউনিভার্সিটি এবং উহান ইউনিভার্সিটি। এসব বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিজ্ঞান ও প্রকৌশল, মেডিকেল, সমাজবিজ্ঞান, মানবিক, ব্যবসায় শিক্ষা, কৃষিসহ অন্য বিষয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডির সুযোগ রয়েছে। প্রতিবছর চীন বিদেশি শিক্ষার্থীদের নানা ধরনের স্কলারশিপ দিয়ে থাকে। এর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় চায়না স্কলারশিপ কাউন্সিল ও চায়না গভর্নমেন্ট স্কলারশিপ। এ ছাড়া কনফুসিয়াস স্কলারশিপ, কাউন্সিল রোড অ্যান্ড বেল্ট স্কলারশিপ, মফকম স্কলারশিপ, কাস টাওয়াস স্কলারশিপ, ইউনিভার্সিটি প্রেসিডেনশিয়াল স্কলারশিপ, প্রভিন্সিয়াল স্কলারশিপ, এন্টারপ্রাইজ স্কলারশিপ, ইয়েস চায়না স্কলারশিপও আছে। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও কিছু স্কলারশিপ দেয়। এসব বৃত্তির আওতায় শিক্ষার্থীরা টিউশন ফি, হোস্টেল ফি, স্বাস্থ্যবিমা ও মাসিক ভাতা পেয়ে থাকেন।

চীনের হাতে গোনা কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া চীনা ভাষা শেখাটা বাধ্যতামূলক নয়। সেখানকার স্নাতকোত্তর ও পরবর্তী পর্যায়ে ইংরেজি ভাষায় পড়ানো হয়। তবে জীবনযাপন সহজ করার জন্য চীনা ভাষা শেখা জরুরি। সাধারণত, প্রথম কাতারের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর জন্য আইইএলটিএস বা এইচএসকে (চীনা ভাষার দক্ষতা পরীক্ষা) দরকার হয়। তবে কেউ যদি ইংরেজি মাধ্যমে লেখাপড়া করে থাকেন, তাহলে এমওআই (মিডিয়াম অব ইনস্ট্রাকশন) সনদ দিয়ে আবেদন করা যাবে।

জার্মানি

উচ্চশিক্ষার জন্য ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় সবার ওপরে যুক্তরাজ্য। এরপরই জার্মানি। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে, বেশ কয়েকটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনির্দিষ্ট কিছু ডিগ্রি প্রোগ্রামে বিনা পয়সায় পড়ার সুযোগ পাওয়া যায়। আছে শিক্ষাবৃত্তির সুবিধাও। ডিসেম্বর থেকে জানুয়ারির সামার সেশন এবং মে থেকে জুলাইয়ের উইন্টার সেশনে আবেদন জমা দেওয়ার পরামর্শ সেখানকার বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের। স্কলারশিপ ছাড়া জার্মানিতে নিজ অর্থে পড়ালেখা করা ব্যয়বহুল। কাজ করার সুযোগ থাকায় অনেকে আংশিক স্কলারশিপ পেলেও জার্মানি পড়তে যান। শিক্ষার্থী হিসেবে সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা কাজের অনুমতি মেলে। এ ছাড়া গ্রীষ্মকালীন তিন মাস ছুটিতে এবং বছরে দুবার সেমিস্টার ব্রেকে ফুলটাইম কাজ করার সুযোগ আছে দেশটিতে। জার্মানরা ইংরেজিতে সাবলীল হলেও পার্টটাইম কাজ করার ক্ষেত্রে জার্মান ভাষা শিখতে হয় শিক্ষার্থীদের। দেশটিতে যেতে জার্মান ভাষা শেখা বাধ্যতামূলক নয়। তবে ভাষাটি জানা থাকলে ছোট-বড় যেকোনো শহরেই কাজ পাওয়া সহজ হয়।

তুরস্ক

উচ্চশিক্ষা গ্রহণের ক্ষেত্রে সাম্প্রতিক বছরগুলোয় শিক্ষার্থীদের পছন্দের তালিকায় নতুন করে যুক্ত হয়েছে তুরস্কের নাম। এর বড় একটি কারণ, তুরস্কের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় পড়ার খরচ তুলনামূলক কম। বৃত্তির সুযোগও বেশি। দেশটিতে সমাজবিজ্ঞান, বিজ্ঞান ও প্রকৌশল, ব্যবসায় প্রশাসনের বিভিন্ন বিষয়, সেই সঙ্গে ইসলামের ইতিহাস ও প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর, পিএইচডি ও রিসার্চ প্রোগ্রামের সুযোগ মেলে।

তুরস্কের সরকারি–বেসরকারি সব বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীদের পড়ার সুযোগ রয়েছে। শিক্ষাবৃত্তি পেলে পড়ার খরচ কমে। স্কলারশিপের আওতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও টিউশন ফি, এক বছরের তুর্কি ভাষা কোর্স ফি, থাকা–খাওয়া, স্বাস্থ্যবিমা, মাসিক ভাতা, প্রথমবার যাওয়া ও পড়ালেখা শেষ করে দেশে ফেরার বিমান টিকিটের টাকা পাওয়া যায়। মাস্টার্স ও পিএইচডির শিক্ষার্থীদের পরিবারসহ থাকার সুযোগ রয়েছে কিছু কিছু ক্ষেত্রে। তুরস্কে বছরে সেপ্টেম্বর-ফেব্রুয়ারি সামার সেশন এবং মার্চ-জুন ফল সেশনে ভর্তি হওয়া যায়।

কোরিয়া

সাম্প্রতিক বছরগুলোয় স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি করার জন্য বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা দক্ষিণ কোরিয়াকে বেছে নিচ্ছেন। এর একটি কারণ হিসেবে শিক্ষার্থীরা বলছেন, বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ে কোরিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ওপরের দিকে। কিন্তু সে অনুযায়ী টিউশন ফি খুব বেশি নয়। এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের আবাসনের ব্যবস্থা থাকায় থাকা–খাওয়ার খরচ সীমিত। বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে গেলে সাধারণত ইংরেজি ও কোরিয়ান—দুটি ভাষার দক্ষতার প্রমাণপত্র দেখাতে হয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় স্নাতক ডিগ্রির মেয়াদ সাধারণত তিন থেকে চার বছর, স্নাতকোত্তর ডিগ্রির মেয়াদ এক থেকে দুই বছর এবং পিএইচডি ডিগ্রির মেয়াদ তিন থেকে পাঁচ বছর হয়ে থাকে।

এদিকে বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা তাঁদের উচ্চশিক্ষার গন্তব্য হিসেবে নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, ডেনমার্ক, রাশিয়া, ইউক্রেন, ফিনল্যান্ড, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ফ্রান্স, সুইডেন, হাঙ্গেরি, স্পেন, চেক রিপাবলিক ইত্যাদি দেশকে বেছে নিচ্ছেন।

কানাডায় স্কলারশিপ ও অভিবাসনের সুযোগ || সেরা গ্লোবাল স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

কানাডায় স্কলারশিপ ও অভিবাসনের সুযোগ || সেরা গ্লোবাল স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

কানাডায় স্কলারশিপ ও অভিবাসনের সুযোগ || সেরা গ্লোবাল স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

কানাডা ইমিগ্রেশনের সঙ্গে কানাডায় পড়াশোনা ওতপ্রোতভাবে সম্পর্কিত। কেননা, কানাডার ডিপ্লোমা বা ডিগ্রির জন্য একজন ইমিগ্রেশন প্রত্যাশী অতিরিক্ত কিছু পয়েন্ট পেতে পারেন। ফলে, কানাডায় পড়াশোনা করলে কানাডা ইমিগ্রেশনের সম্ভাবনা বহুগুণ বেড়ে যায়। সম্ভবত এ কারণেই পৃথিবীর প্রথম তিনটি দেশের একটি কানাডা, যেখানে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক বিদেশী পড়াশোনা করতে যান। বলা বাহুল্য, বৃত্তি নিয়ে এ পড়াশোনা সম্ভব হলে খরচ অনেকাংশে কমে যায়। সঙ্গতকারণে একজন কানাডিয়ান ইমিগ্রেশন কনসালটেন্ট (আরসিআইসি) হিসেবে আমার সঙ্গে বিভিন্ন দেশ হতে কানাডায় পড়তে আগ্রহী মানুষ যোগাযোগ করেন। এদের একটি অংশ আবার জানতে চান স্কলারশিপ নিয়ে কিভাবে কানাডায় পড়াশোনা করা যায়? সে বিষয়েই আজকের এ লেখা।

শুরুতেই দেখা যাক কানাডা কেন বিদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের সেদেশে পড়াশোনার জন্য বৃত্তি দিয়ে থাকে? এর একাধিক কারণ। বহুবিধ কারণের মধ্যে কেবল কয়েকটি উল্লেখযোগ্য কারণ নিয়ে আলোচনা করা যাক-

একজন বিদেশী ছাত্রের পক্ষে কানাডায় পড়াশোনা ব্যয়সাধ্য। আর্থিকভাবে দুর্বল ছাত্রদের আংশিক বা পূর্ণ আর্থিক সহায়তা দেওয়া বৃত্তির প্রদানের অন্যতম উদ্দেশ্য। এ বৃত্তি সরাসরি আর্থিক সহায়তা প্রদান বা, অন্যভাবেও হতে পারে। যেমন, পড়াশোনা চলাকালীন কানাডায় খন্ডকালীন চাকুরী করার সুবিধা দেওয়া, বা পড়াশোনা শেষে একটা নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য কানাডায় পূর্ণকালীন চাকুরীর সুযোগ প্রদান। তবে, এসব ক্ষেত্রে কানাডা সরকার কর্তৃক নির্ধারিত কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নির্ধারিত কিছু স্টাডি প্রোগ্রামে পড়াশোনা করতে হয়; বাছবিচার না করে যে কোন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে যে কোন স্টাডি প্রোগ্রামে পড়তে গেলে হবে না। আমাদের কোম্পানি, এমএলজি ইমিগ্রেশন সার্ভিসেস, এসব বিষয়ে ছাত্রদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ ও সহায়তা দিয়ে থাকে।

Tuition Free Universities in Canada; Apply for admission 2023-2024

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission Studying a professional course in any tuition free universities in Canada has been seen as something most people has seen as inexpensive compared to other countries […]

সরাসরি অর্থ সহায়তা দিয়ে যেসব বৃত্তি কানাডা দিয়ে থাকে তা বেশ প্রতিযোগিতামূলক। এ ধরণের বৃত্তির প্রাকযোগ্যতা ক্ষেত্র ভেদে বিভিন্ন হতে পারে। যেমন, কিছু বৃত্তির জন্য একটি ব্যক্তিগত প্রবন্ধের (personal essay) প্রয়োজন হতে পারে ।কখনো শিক্ষক বা নিয়োগকর্তাদের কাছ থেকে রেফারেন্স চাওয়া হতে পারে। অন্য কিছু ক্ষেত্রে আবেদনকারীর একাডেমিক ফলাফলের পাশাপাশি এক্সট্রাকারিকুলার এক্টিভিটিজ, সমাজসেবামূলক স্বেচ্ছাসেবী কর্মকাণ্ড ও সৃজনশীলতা ইত্যাদি বিবেচনায় এনে বৃত্তি দেওয়া যেতে পারে। উল্লেখ্য, কানাডায় ছাত্ররা পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী কর্মকাণ্ডের সঙ্গেও জড়িত থাকে।

তবে, যারা কানাডা ইমিগ্রেশনের চিন্তা মাথায় রেখে লেখাপড়া ও বৃত্তির সন্ধান করেন তাঁদের একটি বিষয় আগে থেকেই জেনে নেওয়া উচিত। তা হলও, বৃত্তি গ্রহণ করে প্রার্থীর নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার কোন শর্ত বৃত্তির আবেদনে জুড়ে দেয়া আছে কিনা। তেমন ক্ষেত্রে আপনাকে বৃত্তির শর্ত মেনেই কানাডা ইমিগ্রেশনের পরিকল্পনা করতে হবে। যেমন ধরুন, যদি শর্ত থাকে লেখাপড়া শেষ করে দেশে ফিরে গিয়ে কমপক্ষে তিন বছর চাকুরী করতে হবে, তবে সে কাজটি আপনাকে করতেই হবে।

এ ধরণের বৃত্তি প্রদানের মূল উদ্দেশ্য দুটি: এক) তৃতীয় বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলোকে উচ্চশিক্ষা সম্প্রসারণে সহায়তা দিয়ে দেশগুলোর সার্বিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা; দুই) বহির্বিশ্বে কানাডার শিক্ষা-প্রযুক্তির সম্প্রসারণ ঘটানো।

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]

কানাডা সরকারের বাইরেও কানাডার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান একাধিক উদ্দেশ্যে বাইরের দেশের ছাত্রছাত্রীদের বৃত্তি দিয়ে থাকে। উদাহরণস্বরূপ, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ হতে মেধাবী ছাত্রদের নিজেদের কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে উৎসাহিত করা। এ ধরণের বৃত্তির জন্য বিবেচিত হতে হলে একজন ছাত্রকে ভালো জিপিএ এবং উন্নত ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্ট স্কোর (যেমন, আইইএলটিএস) থাকতে হয়। অধিকাংশ ক্ষেত্রে এ ধরণের বৃত্তি ভর্তির সঙ্গে সঙ্গেই দেওয়া হয়না। কানাডার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এক বা দুই টার্ম পড়াশোনা করার পর ফলাফল দেখে দেওয়া হয়। ফলাফলের সঙ্গে বৃত্তি পাওয়ার শর্ত হিসেবে স্বেচ্ছাসেবী কর্মকাণ্ড বা অন্যান্য শর্তও আবশ্যকীয় হিসেবে থাকতে পারে। নিচে কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া প্রদেশের একটি কলেজে বৃত্তি প্রদানের শর্তাবলী দৃষ্টান্ত হিসেবে উল্লেখ করা হলও।

একাডেমিক এডভান্সমেন্ট স্কলারশি’এর প্রাকযোগ্যতা:

– স্টাডি পারমিটের মাধ্যমে অধ্যয়নরত ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট (কানাডার পিআর, বা সিটিজেন নন এমন বিদেশী ছাত্র) হতে হবে।

– কমপক্ষে দুটি সেমিস্টার সফলভাবে উত্তীর্ণ হতে হবে।

– জিপিএ ৭.০ (A -) বা তার অধিক হতে হবে।

– কলেজের স্টুডেন্ট কম্যুনিটি সম্পর্কিত স্বেচ্ছাসেবী কাজে সক্রিয় অংশগ্রহণ থাকতে হবে।

– বৃত্তির অর্থমূল্য: এককালীন ১,০০০ কানাডিয়ান ডলার; মোট সংখ্যা: ৫টি।

লক্ষ করুন, বৃত্তিগুলোতে পড়াশোনায় ভালো ফলাফলের পাশাপাশি ভলান্টিয়ারিংয়ের (স্বেচ্ছাসেবী কর্মকাণ্ড) শর্তও জুড়ে দেওয়া আছে। তাই, কানাডায় বৃত্তি পাবার সম্ভাবনা বাড়াতে বাংলাদেশের ছাত্র-ছাত্রীরা পড়াশোনার পাশাপাশি বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে নিজেদের জড়িত করতে পারে। তবে, এসব যেন কোনোভাবেই কাগজ-সর্বস্ব না হয়। ব্যাপক পরিচিতি আছে এমন সেবামূলক আন্তর্জাতিক সংগঠনে সম্পৃক্ততা, যা সহজে ভেরিফাই করা যায়, হতে পারে সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডে অংশগ্রহণের অকাট্য প্রমাণ।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোন স্টাডি প্রোগ্রামে আসন খালি থাকলেও তা বৃত্তি দিয়ে পূরণ করা হয়। ধরা যাক, আপনাকে সামান্য বৃত্তি বা কোন বৃত্তি না দিয়েই প্রথমে একটা স্টাডি প্রোগ্রামে ভর্তির অফার দেয়া হলও। কিছুদিন পর দেখা গেলো আপনাকে বৃত্তি দেয়া হয়েছে বা আপনার বৃত্তির পরিমাণ আরও বাড়ানো হয়েছে। তার মানে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ধারণা করছে ওই বিশেষ প্রোগ্রামে আসন খালি পরে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। তেমন কিছু হলে যতই ক্লাস শুরুর দিন ঘনিয়ে আসবে ততই বৃত্তির পরিমাণ বা সংখ্যা বেড়ে যেতে পারে। অনেক সময় সরাসরি বৃত্তির পরিমাণ না বাড়িয়ে প্রার্থীকে দিয়ে এক বা একাধিক রচনা লিখিয়ে নেওয়া হয়। তারপর বৃত্তি কমানো হয় যাতে প্রার্থী মনে করেন তিনি ভালো রচনা লেখার কারণেই হয়তো বা বর্ধিত বৃত্তি পেয়েছেন। এভাবে শুধু একবার নয়, দুই বার বৃত্তির পরিমাণ বাড়াতেও আমরা দেখেছি। অর্থাৎ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক স্বার্থও বৃত্তি প্রদানে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিবেচ্য।

অনেকসময় মার্কেটিং স্ট্রাটেজির অংশ হিসেবেও কোন কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বিদেশী ছাত্রদের বৃত্তি দিয়ে থাকে। এসব ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জরিপ চালিয়ে দেখে তাদের প্রতিষ্ঠানে কোন কোন দেশের ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতি তুলনামূলক ভাবে কম। এভাবে বেছে বেছে কিছু দেশের ছাত্রছাত্রীদের জন্য তারা বৃত্তি ঘোষণা করে থাকে। দুর্ভাগ্য যে, বাংলাদেশসহ এশিয়ার অনেক দেশই এ সুযোগের আওতায় সচরাচর বিবেচিত হয় না। কারণ, এসব দেশের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ছাত্রছাত্রী পৃথিবীর প্রায় সব দেশের স্কুল কলেজেই পড়ালেখা করে। ফলে, এসব দেশ হতে ছাত্র আকর্ষণ করতে মার্কেটিংয়ের তেমন প্রয়োজন পড়ে না।

এ লেখায় কানাডায় পড়াশোনার জন্য বৃত্তি সম্পর্কিত কিছু তথ্য উপস্থাপন প্রাসঙ্গিক হবে। কানাডায় বিদেশী ছাত্রদের বৃত্তির উৎস মূলত: দুটি। এক) কানাডা সরকার, দুই) বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, কোম্পানি বা সংগঠন। গুগলে সার্চ দিয়ে আপনি বৃত্তির আরও সূত্র খুঁজে পেতে পারেন। সার্চ ওয়ার্ড হতে পারে এমন: ‘international  scholarships’, ‘international scholarships for non-Canadians’, ‘scholarships for international students’, ‘Government of Canada Scholarships’, ‘Canada scholarship resources’, ইত্যাদি। কানাডার বিভিন্ন কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ঢুকেও ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টদের জন্য স্কলারশিপ আছে কিনা তা খুঁজে দেখা যায়। তাছাড়া, কানাডায় বৃত্তির তথ্য খোঁজার দুটি জনপ্রিয় লিংকও এখানে দিলাম: https://global-scholarship.shoptorsi.com/ এবং https://canadavisa.shoptorsi.com/

https://www.scholarshipscanada.com/ এবং https://www.educanada.ca/

কানাডায় যারা পড়াশোনা করতে আসে তাদের অনেকেরই স্বপ্ন থাকে কানাডায় ইমিগ্রেশন পাওয়া। তাই, বৃত্তির আবেদনের আগেই দেখে নেয়া উচিত ‘কানাডায় পড়াশোনা শেষে নিজ দেশে ফিরে যাওয়া বাধ্যতামূলক’ তেমন কোন শর্ত জুড়ে দেয়া আছে কিনা? সেক্ষেত্রে পড়াশোনা শেষে দেশে ফিরে শর্ত মেনে পরবর্তীতে কানাডা ইমিগ্রেশনের আবেদন করা যায়। বলা বাহুল্য, বয়স বেড়ে গেলে কানাডা ইমিগ্রেশনের পয়েন্ট কমে যায় বলে শুরুতেই শর্তহীন বৃত্তি খুঁজে নেয়ার চেষ্টাই অধিকতর উপযোগী মনে করি। তাছাড়া, আপনাকে দেয়া স্টাডি পারমিটের প্রতিটি শর্তও অক্ষরে অক্ষরে পালন করা বাধ্যতামূলক। অন্যথায় পড়াশোনায় ভালো রেজাল্ট হলেও আপনার ওয়ার্ক পারমিট বা ইমিগ্রেশনের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হতে পারে।

বিশ্বসেরা ৬ স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

উচ্চশিক্ষা গ্রহণে দেশের বাইরে যাওয়ার স্বপ্ন সবারই থাকে। কেউ হয়তো সুযোগ পান, কেউ পান না। কারণ বিদেশে পড়তে যাওয়ার খরচ অনেক। এ জন্যই মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কলারশিপের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। ভাগ্যগুণে যদি স্কলারশিপ কেউ পেয়ে যান, তবে তার জীবন সার্থক।

সম্প্রতি বিশ্বসেরা ৬টি স্কলারশিপের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এসব স্কলারশিপে আবেদন করার পর বিভিন্ন ধাপে পরীক্ষা দিতে হবে। তারপর যদি ভাগ্য ভালো থাকে, তবেই বিনা মূল্যে পড়ার সুযোগ পাবেন।

আবার অনেক সময় আইএলটিএস বা টোফেল বিদেশে পড়তে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিরাট বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তবে জানলে অবাক হবেন, বিশ্বসেরা ৬টি বৃত্তির বিজ্ঞপ্তিতে কোনো কোনো ক্ষেত্রে এসবও লাগবে না।

আন্ডার গ্রাজুয়েট, মাস্টার্স এবং পিএইচডির ক্ষেত্রে স্কলারশিপ দেওয়া হয়। এসব বৃত্তির কয়েকটিতে চলতি মাসে এবং কয়েকটি আগামী মাস পর্যন্ত সময় নির্ধারিত রয়েছে। এ সময়ের মধ্যেই আবেদন করতে হবে।

শুধু বিনা মূল্যে পড়ার সুযোগ নয়, সঙ্গে স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা পাবেন নানা সুযোগ-সুবিধা। প্রতিবছর ৪ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলারের এসব বৃত্তিতে শিক্ষার্থীরা টিউশন ফি, মেডিকেল ফি, ভিসা ফি এবং মাসে হাতখরচের অর্থও পান। জেনে নিন এসব স্কলারশিপ সম্পর্কে-

ক্যামব্রিজ গেটস স্কলারশিপ: যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন সময়ে বিশ্বব্যাপী নানা বৃত্তি দেয়। এ বছরের জন্য বিশ্বের অন্যতম এ প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয়টি দিচ্ছে গেটস ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ। মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশন এ বৃত্তির জন্য অর্থায়ন করে থাকে।

ডিপ্লোমা, মাস্টার্স ও পিএইচডির জন্য এ বৃত্তি দেওয়া হয়। এ মাসের শেষদিন পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা ১ বছরে সাড়ে ১৭ হাজার পাউন্ড পাবেন। এর সঙ্গে বিমানের যাওয়া-আসার টিকিটও পাবেন। কোর্সভেদে অনেকে ৫০০-২০০০ হাজার পাউন্ড পাবেন।

US Canada UK Australia Fully Funded Government Scholarships; 2023-2024 Apply Now

US Canada UK Australia Fully Funded Government Scholarships; 2023-2024 Apply Now

Find and apply for as many scholarships as you can—it’s free money for college or career school! Start researching early, and meet deadlines, and you may be on your way to scholarship success. Scholarships are […]

ভিসা ও স্বাস্থ্যবীমার সুবিধাও রয়েছে। বিবাহিতরা যেমন সুযোগ-সুবিধা পাবেন; তেমনি সন্তান থাকলেও তার ভরণ-পোষণের জন্য ভাতা পাবেন। বছরে ১০ হাজার ১২০ পাউন্ড পাবেন প্রথম সন্তানের জন্য। আর দ্বিতীয় সন্তানের জন্য পাবেন ৪ হাজার ৩২০ পাউন্ড। ফিল্ডওয়ার্কের জন্য পিএইচডির শিক্ষার্থীরা পাবেন আলাদা অ্যালাউন্স। এ ছাড়া মাতৃত্ব ও পিতৃত্বকালীন অর্থের ব্যবস্থা আছে। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

কমনওয়েলথ বৃত্তি: নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর শিক্ষার্থীদের যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপে মাস্টার্সে পড়াশোনা করার সুযোগ করে দেয় কমনওয়েলথ বৃত্তি। ২০২১ সালের জন্য কমনওয়েলথ স্কলারশিপের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। কমনওয়েলথ বৃত্তির জন্য কোনো আবেদন ফি নেই।

মাস্টার্সের জন্য ১ বছর এবং পিএইচডির জন্য ৩ বছরের কমনওয়েলথ বৃত্তি দেওয়া হয়। কমনওয়েলথভুক্ত ৫৪ দেশের শিক্ষার্থীরা এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করা যাবে। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২৭ হাজার ৮০০ জন কমনওয়েলথ বৃত্তি পেয়েছেন। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

বিনা খরচ/স্বল্প খরচে কানাডা, যুক্তরাজ্য, চায়না, সৌদি আরবে পড়তে চান? ২০২৩-২০২৪ অনলাইনে আবেদন

বিনা খরচ/স্বল্প খরচে কানাডা, যুক্তরাজ্য, চায়না, সৌদি আরবে পড়তে চান? অনলাইনে আবেদন

বিনা খরচে যুক্তরাজ্য ও কানাডায় বিনা খরচে পড়তে দ্রুত আবেদন করুন:

স্নাতকোত্তর ও ডক্টরাল পর্যায়ে বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে, কানাডায় স্কলারশিপ পেতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছে দ্য ন্যাচারাল সায়েন্সেস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ কাউন্সিল অব কানাডা। ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের জন্য কানাডা গ্র্যাজুয়েট স্কলারশিপ প্রোগ্রাম নামে এই বৃত্তি দেওয়া হবে। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরাও এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। দ্রুত অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

Tuition Free Universities in Canada; Apply for admission 2023-2024

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission Studying a professional course in any tuition free universities in Canada has been seen as something most people has seen as inexpensive compared to other countries […]

কানাডা গ্র্যাজুয়েট স্কলারশিপ-মাস্টার্স (সিজিএস-এম) প্রোগ্রামের উদ্দেশ্য শিক্ষার্থী গবেষণার দক্ষতা বাড়ানো ও প্রশিক্ষণ প্রদান। স্নাতকোত্তর ও ডক্টরাল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের এই প্রোগ্রামের আওতায় আর্থিক সুবিধাও দেবে। এটি একটি ফুল ফ্রি বৃত্তি। দ্য কানাডিয়ান ইনস্টিটিউটস অব রিসার্চ (সিআইএইচআর), দ্য ন্যাচারাল সায়েন্সেস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ কাউন্সিল (এনএসইআরসি) ও দ্য সোশ্যাল সায়েন্সেস অ্যান্ড হিউম্যানিটিস রিসার্চ কাউন্সিল (এসএসএইচআরসি) যৌথভাবে এই বৃত্তি দিয়ে থাকে। প্রতিবছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে তিন হাজারের বেশি শিক্ষার্থীকে এই বৃত্তি দেওয়া হয়।

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ৬ স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি ও স্কলারশিপের আবেদন এর নিয়ম

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি ও স্কলারশিপের আবেদন এর নিয়ম; উচ্চশিক্ষা গ্রহণে দেশের বাইরে যেমন বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে, কানাডায় যাওয়ার স্বপ্ন সবারই থাকে। কেউ হয়তো সুযোগ পান, কেউ পান না। কারণ বিদেশে পড়তে যাওয়ার খরচ অনেক। এ জন্যই মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্বসেরা […]

যোগ্যতা

  • সিজিএস-এম অ্যালোটমেন্টভুক্ত কানাডার কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর বা ডক্টরাল লেভেলে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে।
  • ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে আগের পড়াশোনা শেষ করতে হবে।
  • এই প্রোগ্রামের আওতায় এক বছর কানাডায় থাকতে হবে।
  • সিআইএইচআর, এনএসইআরসি বা এসএসএইচআরসি থেকে আগে কোনো বৃত্তি পেলে আবেদন করার প্রয়োজন নেই।

আবেদন যেভাবে
আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। এনএসইআরসির ওয়েবসাইটে গিয়ে রিসার্চ পোর্টালের এই লিংক আবেদন করতে হবে। বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই লিংকে জানা যাবে।

Global JOBS USA DV VISA 2024

JOBS IN USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

Looking to Move to the USA; Jobs Or Study in USA ? Lucky for you, your dream may become a reality! Thanks to the green card lottery anyone from an eligible country can become the lucky […]

২০২৩ ব্রিটিশ হাই কমিশন বৃত্তি- বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে  | লন্ডন সম্পূর্ণ ফ্রি

আপনি এখন হাই কমিশন অফ ব্রিটিশ স্কলারশিপ ২০২৩এর জন্য আবেদন করতে পারেন৷ বর্তমানে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে খোলা আছে ব্রিটিশ হাই কমিশন বৃত্তি ২০২৩ সমস্ত আন্তর্জাতিক আবেদনকারীকে ইউকেতে সম্পূর্ণ  স্কলারশিপে অধ্যয়নের জন্য স্বাগত জানানো হয়। তাই আপনিও পড়ুন বিদেশে/লন্ডনে সম্পূর্ণ ফ্রি।

 

বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে অর্থাৎ যুক্তরাজ্য সরকার সমস্ত খরচ বহন করবে। যেমন ফি, টিউশন ফি, আবাসন, উপবৃত্তি, বই, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা এবং আপনার দেশে/থেকে যাতায়াতের টিকিট ইত্যাদি। ব্রিটিশ স্কলারশিপ বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকে যেকোনো জাতীয়তার জন্য উন্মুক্ত। তাই স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং পিএইচডি ডিগ্রির জন্য যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করার সুযোগ রয়েছে। বিনা খরচে কানাডায় পড়তে যাওয়ার এটা একটা ভাল উপায় হতে পারে।

 

যুক্তরাজ্য আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য সেকেন্ড হোম বা দ্বিতীয় বাড়ি হিসেবে পরিচিত। যখন কেউ যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করতে আসে, তারা একটি সফল ক্যারিয়ারের দরজা খোলা দেখতে পায়। পড়াশোনা শেষ করার পর যুক্তরাজ্য সরকার আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য চমৎকার সুযোগ প্রদান করে। যুক্তরাজ্যে ৩৯৫টিরও বেশি এমন বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজ রয়েছে, যারা ৫০,০০০ (পঞ্চাশ হাজার)টিরও বেশি ডিগ্রি প্রোগ্রাম অফার করে থাকে।

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]

আন্তর্জাতিক আবেদনকারীদের এখনই ইউকে স্কলারশিপ ২০২৩ -এর জন্য আবেদন করা উচিৎ। ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে অংশগ্রহণের জন্য ভর্তির আবেদনের সুযোগ চালু আছে। আপনার জন্য উপযুক্ত ও সঠিক ডিগ্রি প্রোগ্রাম, কোর্স, সুবিধা এবং তহবিলের বিস্তারিত জেনে আবেদন করুন। উল্লেখ্য যে, সরকারী অর্থায়িত স্কলারশিপ প্রোগ্রামের জন্য কোনো আবেদন ফি লাগবে না।

 

তাহলে আপনি কি ইউকে তে স্টাডির জন্য রেডি? ব্রিটিশ হাই কমিশন স্কলারশিপ ২০২৩ -এর তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

 

স্কলারশিপ- ব্রিটিশ হাই কমিশন ২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিত

  • বৃত্তির দেশঃ যুক্তরাজ্য
  • ডিগ্রি স্তরঃ স্নাতক, স্নাতকোত্তর, পিএইচডি
  • আর্থিক কভারেজঃ সম্পূর্ণরূপে ব্রিটিশ সরকার কর্তৃক অর্থায়িত

 

ব্রিটিশ হাই কমিশন কর্তৃক প্রদত্ত বৃত্তির তালিকা

০১। ব্রিটিশ ইউনিভার্সিটি অফ সাফোক স্কলারশিপ ২০২৩

২০২৩-২০২৪ -এর ক্লাসের জন্য, ২০২৩ সালের বসন্ত উপলক্ষ্যে ব্রিটিশ ইউনিভার্সিটি অফ সাফোক স্কলারশিপ। যেহেতু এটি যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে একটি, তাই এখানে সমস্ত ডিগ্রি প্রোগ্রামে বৃত্তি পাওয়া যায়। এটি BS, MS, এবং পিএইচডি -এর জন্য উন্মুক্ত। ডিগ্রীও পাওয়া যাবে সব শাখায়।

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায়

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায়

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায় ! বিদেশে উচ্চশিক্ষা করতে যাওয়া অনেকের কাছে সোনার হরিণ। আবার কারো কাছে পান্তা ভাত। সবাই বিদেশের স্টুডেন্ট […] যেমন বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে পড়তে চান?

ব্রিটিশ ইউনিভার্সিটি অফ সাফোক স্কলারশিপ ২০২৩ – যা যা অন্তর্ভুক্ত

ভিসা কভারেজ, খাবার, বাসস্থান, আগমন ভাতা, মাসিক উপবৃত্তি, টিউশন অনুদান এবং আরও অনেক কিছু।

 

০২। ব্রিটিশ ইউনিভার্সিটি ম্যানচেস্টার স্কলারশিপ ২০২৩

ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি আরেকটি শীর্ষস্থানীয় ইউকে বিশ্ববিদ্যালয়। যদি আপনার আইইএলটিএস না থাকে, তাহলে আপনি ইংরেজি দক্ষতার ভাষা শংসাপত্র প্রদর্শন করেও আবেদন করতে পারেন। ম্যানচেস্টার ইউনিভার্সিটি ২০২৩ সালের জন্য ব্যাচেলর, মাস্টার্স এবং পিএইচডি -এর উপর স্কলারশিপ দিচ্ছে।

 

ইউনিভার্সিটি অফ ম্যানচেস্টার স্কলারশিপ ২০২৩ – যা যা অন্তর্ভুক্ত

টিউশন অনুদান, মাসিক নগদ/উপবৃত্তি, আবাসন ভাতা, এবং কার্যকলাপের জন্য অন্যান্য অতিরিক্ত তহবিল। সাফল্যের হার ৫৭%।

 

০৩। গেটস ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় বৃত্তি ২০২৩

এই বৃত্তিটি বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন দ্বারা সম্পূর্ণ অর্থায়ন করা হয়। যা ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাস্টার্স, পিএইচডি, এমফিল, আইন, এমবিএ প্রোগ্রামগুলি গ্রহণ করার জন্য সমস্ত আন্তর্জাতিক ছাত্রদের জন্য উন্মুক্ত। আপনিও লাভ করতে পারে ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য একটি সম্পূর্ণ অর্থায়িত ব্রিটিশ বৃত্তি। ক্যামব্রিজ ইউনিভার্সিটিতে ফুল-টাইম স্নাতকোত্তর মাস্টার্স এবং পিএইচডি অধ্যয়নের জন্য যেকোনো বিষয়ে বৃত্তি প্রদান করা হবে। মোট বৃত্তির সংখ্যা ৯০টি।

 

০৪। যুক্তরাজ্যে চেভেনিং স্কলারশিপ ২০২৩

ব্রিটিশ চেভেনিং স্কলারশিপ একটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যের ইউকে -এর সরকারী বৃত্তি প্রোগ্রাম। আপনি শেভেনিং স্কলারশিপ প্রোগ্রামের অধীনে মাস্টার্স/এমফিল ডিগ্রি প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে পারেন। চেভেনিং খুব ভালোভাবেই যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধিত্ব করে।

 

চেভেনিং স্কলারশিপের জন্য, আপনার কোন পেশাদার কাজের অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই। আপনি যদি কোনো বৈতনিক বা অবৈতনিক স্বেচ্ছাসেবক কার্যকলাপ সম্পন্ন করে থাকেন, তাহলে এটিও আপনার কাজের অভিজ্ঞতা হিসাবে গণ্য হবে। আপনি চেভেনিং ইউকে স্কলারশিপের অধীনে ১৫০ (একশো পঞ্চাশি)টিরও বেশি ইউকে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, ১২০০০ (বারো হাজার) -এরও বেশি মাস্টার্স কোর্স থেকে আপনার পছন্দের কোর্সটি বেছে নিতে পারবেন।

 

০৫। গ্রেট ইউকে স্কলারশিপ ২০২২২০২৩

গ্রেট স্কলারশিপ হলো, ১৮টি দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য বিভিন্ন বিষয়ে যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার জন্য বৃত্তি। গ্রেট স্কলারশিপ, স্নাতকোত্তর ডিগ্রী প্রোগ্রাম সম্পূর্ণ করার জন্য একটি সম্পূর্ণ অর্থায়িত বৃত্তি। মোট ৩১০টি বৃত্তি প্রদান করা হবে। বৃত্তিটি যুক্তরাজ্য সরকার এবং ব্রিটিশ কাউন্সিল দ্বারা অর্থায়ন করা হয়। আপনি ১৮টি ইউকে ইউনিভার্সিটির যেকোনোটিতে আপনার মাস্টার ডিগ্রি প্রোগ্রাম সম্পূর্ণ করতে পারেন।

 

০৬। ১০০০ রিচ অক্সফোর্ড স্কলারশিপ ইউকে

রিচ অক্সফোর্ড ব্যাচেলর, মাস্টার্স, পিএইচডি এবং ডক্টরাল ডিগ্রি প্রোগ্রামের জন্য একটি সম্পূর্ণ অর্থায়িত বৃত্তি। এই প্রোগ্রামের অধীনে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা ১০০০ (এক হাজার)টিরও বেশি বৃত্তি দেওয়া হয়। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির মধ্যে অন্যতম। এমনকি সারা বিশ্বে ধারাবাহিকভাবে ১নং বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান ধরে রেখেছে অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি।

রিচ অক্সফোর্ড স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট পরিদর্শন করুনঃ

 

০৭। যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে কমনওয়েলথ বৃত্তি

মাস্টার্স এবং পিএইচডি ডিগ্রি প্রোগ্রামের জন্য রয়েছে, যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে কমনওয়েলথ স্কলারশিপ। এই স্কলারশিপটি কমনওয়েলথ স্কলারশিপ কমিশন (CSC) দ্বারা অর্থায়িত। যা যেকোনো ইউকে অধীনস্থ কমনওয়েল্থ স্কলারশিপ ডিগ্রি প্রোগ্রাম সম্পন্ন করতে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদেরকে নির্বাচন করে।

 

কমনওয়েলথ স্কলারশিপ কমিশন (CSC)’ অফারসমূহ

 

কেনো আপনার বিনা খরচে যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করা উচিত?

  • যুক্তরাজ্যে পড়াশোনা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া আপনার ভবিষ্যতের জন্য একটি বিনিয়োগ।
  • ইউকে থেকে একটি মর্যাদাপূর্ণ ডিগ্রী, আপনার নিয়োগযোগ্যতার ক্ষেত্রে অনেক মূল্যবান
  • যুক্তরাজ্যে অধ্যয়ন করতে চান এমন আন্তর্জাতিক ছাত্রদের জন্য অনেক তহবিল বিকল্প রয়েছে।
  • এগুলির মধ্যে আংশিক-তহবিল থেকে শুরু করে সম্পূর্ণ-তহবিল পর্যন্ত রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, আপনার ফিগুলির একটি অংশ প্রদান করা। অথবা ফুল ফি যেমন, প্রোগ্রাম ফি, জীবনযাত্রার ব্যয় ইত্যাদি কভার করে।

২০২৩-২৪ শোয়ার্জম্যান স্কলারস স্কলারশিপ -চায়না

বেইজিংয়ের সিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে এক বছরের সম্পূর্ণ অর্থায়িত মাস্টার্স প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করুন, যা ভবিষ্যতের নেতাদের একটি বিশ্বব্যাপী সম্প্রদায় তৈরি করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছেযারা চীন এবং বাকি বিশ্বের মধ্যে বোঝাপড়াকে আরও গভীর করতে সহায়তা করবে।

বৈশ্বিক অগ্রগতির জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ একটি বৈচিত্র্যময় সম্প্রদায়ে যোগ দিন। প্রতি বছর শোয়ার্জম্যান বেইজিংয়ের সিংহুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে মাস্টার ডিগ্রির জন্য অধ্যয়নের জন্য ২০০টি বৃত্তিপ্রদান করে। Tsinghua বিশ্ববিদ্যালয় চীনের শীর্ষস্থানীয় বিশ্ববিদ্যালয়, বিশ্বের ১৫তম স্থানে রয়েছে।কোন IELTS/TOEFL বা অন্যান্য ভাষার প্রয়োজনীয়তা নেই যদি আপনি একটি ইংরেজি মাধ্যম ইনস্টিটিউটে আপনার পূর্ববর্তী স্নাতক অধ্যয়ন সম্পন্ন করেন।

শোয়ার্জম্যান স্কলারদের বিশিষ্ট প্রার্থীদের একটি আন্তর্জাতিক পুল থেকে নির্বাচিত করা হয়। পণ্ডিতরা বিশ্বের সমস্ত অঞ্চল এবং সেক্টরের তরুণ নেতাদের একটি বৈচিত্র্যময় দলকে একত্রিত করে যারা যৌথমিশনে কাজ করার সময় একে অপরের পার্থক্যকে আলিঙ্গন করে। তাদের বৈশ্বিক নেতাদের দল বিশ্বব্যাপী বৈচিত্র্য, প্রাণবন্ততা এবং প্রতিশ্রুতি প্রতিফলিত করে। শোয়ার্জম্যান স্কলাররা অন্যান্য সংস্কৃতি, দৃষ্টিভঙ্গি এবং অবস্থান বোঝার সুযোগ গ্রহণ করে। বিদেশী মন্ত্রী, রাজনৈতিক নেতা, সাংস্কৃতিক আলোকিত ব্যক্তি এবং উদ্যোক্তাদের সাথে আলাপচারিতার মাধ্যমে পণ্ডিতরা বিশ্বমানের শিক্ষা লাভ করেন।

প্রতি বছর, বিশ্বের পরবর্তী প্রজন্মের নেতাদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য একটি নতুন শ্রেণী নির্বাচন করা হয় – উন্মুক্ত মন এবং সীমাহীন সম্ভাবনার উচ্চ-ক্ষমতাসম্পন্ন ব্যক্তি যারা চীন এবং বাকি বিশ্বেরমধ্যে বোঝাপড়াকে আরও গভীর করতে সহায়তা করবে।

সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল আবেদন করার জন্য কোন ন্যূনতম জিপিএ বা ক্লাস র‌্যাঙ্কের প্রয়োজননেই। মানে সিজিপিএর ভিত্তিতে সিলেকশন হয় না। শোয়ার্জম্যান স্কলারশিপ হল যেকোনো ধরনের একাডেমিক পটভূমি সহ সমস্ত জাতীয়তার সমস্ত ছাত্রদের জন্য চীনে অধ্যয়নের জন্য একটি বিনামূল্যেরবৃত্তি। সম্ভাব্য পণ্ডিতরা একাডেমিক শ্রেষ্ঠত্ব, তাদের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রমী ফলাফল এবং অসামান্য নেতৃত্বেরগুণাবলী প্রদর্শন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রোগ্রামটি ২০২৩ সালের আগস্টে শুরু হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বব্যাপী আবেদনকারীদের জন্য, আবেদনের সময়সীমা ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২। এর জন্য নির্বাচনের চক্র অক্টোবর থেকে নভেম্বর ২০২২ পর্যন্ত পরিচালিত হবে। চীনা পাসপোর্ট সহ আবেদনকারীদের আবেদনের সময়সীমা হল ২০ মে, ২০২২, এবং এর জন্য নির্বাচন চক্র জুন থেকে জুলাই ২০২২ পর্যন্ত

স্থানচীন

 সুযোগ সুবিধাসমূহ

  • শোয়ার্জম্যান স্কলার হওয়ার জন্য নির্বাচিত আবেদনকারীরা নিম্নলিখিত সুবিধাগুলি পাবেন-
  • একটি ব্যাপক বৃত্তি যা টিউশন এবং ফি, রুম এবং বোর্ড অন্তর্ভুক্ত করবে
  • শিক্ষাবর্ষের শুরুতে এবং শেষে বেইজিং-এ ভ্রমণের খরচ কভার করা হবে
  • একটি দেশে অধ্যয়ন সফর
  • কোর্সের বই এবং সরবরাহ, স্বাস্থ্য বীমা, এবং একটি ব্যক্তিগত উপবৃত্তির জন্য ভাতা

 আবেদনের যোগ্যতা

প্রোগ্রামের উচ্চ চাহিদা মেটাতে সবচেয়ে যোগ্য প্রার্থীদের অবশ্যই নিম্নলিখিত ক্ষেত্রগুলিতে শ্রেষ্ঠত্ব প্রদর্শন করতে হবে

  • নেতৃত্বের ক্ষমতা
  • অনুকরণীয় চরিত্র এবং সততা
  • একাডেমিক যোগ্যতা এবং বুদ্ধিবৃত্তিক ক্ষমতা
  • সহানুভূতি এবং আন্তঃসাংস্কৃতিক দক্ষতা
  • মুক্তমনা
  • উদ্যোক্তা আত্মা

প্রার্থীদের অবশ্যই নিম্নলিখিত মানদণ্ড পূরণ করতে হবে-

  • স্নাতক ডিগ্রি থাকতে হবে। যে সমস্ত আবেদনকারীরা বর্তমানে স্নাতক ডিগ্রি প্রোগ্রামে নথিভুক্ত হয়েছেন তাদের অবশ্যই তাদের শোয়ার্জম্যান স্কলারদের তালিকাভুক্তির বছরের ১ আগস্টের আগে সমস্ত ডিগ্রি প্রয়োজনীয়তা সফলভাবে পূরণ করতে হবে। স্নাতক অধ্যয়নের একটি নির্দিষ্ট ক্ষেত্রের জন্য কোন প্রয়োজনীয়তা নেই; সব ক্ষেত্র স্বাগত জানাই.
  • বয়স ১৮-২৮ হতে হবে।
  • ইংরেজি ভাষায় দক্ষ। আবেদনকারীর মাতৃভাষা ইংরেজি না হলে, অফিসিয়াল ইংরেজি দক্ষতা পরীক্ষার স্কোর আবেদনের সাথে জমা দিতে হবে। গ্রহণযোগ্য পরীক্ষার বিকল্পগুলি হল বিদেশী ভাষা হিসাবে ইংরেজির পরীক্ষা (TOEFL PBT)। ন্যূনতম স্কোর ৬০০। বিদেশী ভাষা হিসাবে ইংরেজির ইন্টারনেট-ভিত্তিক পরীক্ষা (TOEFL iBT)। ন্যূনতম স্কোর ১০০। ইন্টারন্যাশনাল ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্টিং সিস্টেম (IELTS)। সর্বনিম্ন স্কোর ৭।
  • যে সকল আবেদনকারীর জন্য আন্ডারগ্রাজুয়েট ইনস্টিটিউশনে অধ্যয়ন করেছেন, যেখানে আবেদনকারীর একাডেমিক প্রোগ্রামের কমপক্ষে ২ বছরের জন্য প্রাথমিক শিক্ষার ভাষা ইংরেজি ছিল তাদের জন্য ভাষার প্রয়োজনীয়তা মওকুফ করা হয়েছে।

যেসকল স্থানের প্রার্থীদের জন্য প্রযোজ্যসবার জন্য উন্মুক্ত

২০২৩-২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে কানাডা; অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে

২০২৩-২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে কানাডা; অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে

আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে সাড়ে ১৪ লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা -অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে। আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে বলে কানাডা জানিয়েছে। সারা দেশে প্রায় ১০ লাখ পদ খালি আছে। […]

২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে বিদেশী শিক্ষার্থীদের সৌদি স্কলারশিপ

আগামী ২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে বিদেশী শিক্ষার্থীদের স্কলারশিপ দিচ্ছে সৌদি আরব। পবিত্র দুই পবিত্র মসজিদ স্কলারশিপ প্রোগ্রামের কাস্টোডিয়ানের জন্য রবিবার থেকে আবেদন জমা দেওয়া শুরু হয়েছে। সৌদি শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক ঘোষণায় এ তথ্য জানিয়েছে। সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

২০২৩-২০২৪ শিক্ষাবর্ষে দুই পবিত্র মসজিদ স্কলারশিপ প্রোগ্রামের কাস্টোডিয়ানের কৌশলটি ক্রাউন প্রিন্স এবং প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান দ্বারা চালু করা হয়েছিল। বিন সালমান মানব সক্ষমতা উন্নয়ন কর্মসূচি কমিটিরও চেয়ারম্যান।

নতুন কৌশল অনুসারে, প্রোগ্রামটির চারটি পথ রয়েছে: অগ্রগামীদের “আলোওয়াদ” পথ, গবেষণা ও উন্নয়নের পথ, সেইসাথে পরিবারকে সহায়তা করতে অর্থ আয়কারী “এমদাদ” পথ এবং প্রতিশ্রুতিশীল “ওয়া’দ” পথ।

বৃত্তির জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি ডক্টর আমাল শুকাইর বলেছেন, এই বছর আবেদন জমা দেওয়া তিনটি পথের মাধ্যমে নেয়া হবে। সেগুলো হচ্ছে- অগ্রগামী, গবেষণা ও উন্নয়ন এবং এমদাদ।

তিনি যোগ করেছেন যে, এই প্রোগ্রামে নেতৃস্থানীয় আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলির সেরা শিক্ষকদের অন্তভূক্ত করা হবে। যেগুলি কিংডমের ভিশন ২০৩০ এর উদ্দেশ্যগুলি অর্জন করতে এবং চাকরির বাজারের প্রয়োজনীয়তা পূরণের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছিল।

উপরন্তু, এটি শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার স্তর বাড়ায় এবং রাজ্যের প্রতিশ্রুতিশীল সেক্টরগুলিতে নতুন এবং বৈচিত্র্যময় বিশেষীকরণকে সমর্থন করে, যা বিশ্বব্যাপী প্রতিযোগিতামূলকতা অর্জনে অবদান রাখে সেই প্রোগ্রামগুলি ছাড়াও যা জীবনযাত্রার মানকে সমর্থন করে এবং একটি প্রাণবন্ত সমাজ গঠন করে।

ড. শুকাইর বলেছেন যে ২০২৩-২০২৪ এর জন্য শর্ত এবং প্রয়োজনীয়তা দুটি পবিত্র মসজিদ স্কলারশিপ প্রোগ্রামের কাস্টডিয়ানের ইলেকট্রনিক পোর্টালে পাওয়া যাবে।

স্কলারশিপ পেতে আগ্রহীরা নিম্নলিখিত URL-এ গিয়ে আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেজার্সের তালিকা দেখতে এই পোর্টালটিতে পাবেন: https://moe.gov.sa/scholarship-program/index.html

 

২০২৩-২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে কানাডা; অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে

২০২৩-২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে কানাডা; অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে

আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে সাড়ে ১৪ লাখ অভিবাসী নেবে কানাডা -অনলাইনে আবেদন করবেন যেভাবে

আগামী ২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসী নিবে বলে কানাডা জানিয়েছে। সারা দেশে প্রায় ১০ লাখ পদ খালি আছে। এসব পদ পূরণের জন্য কানাডা বিদেশিদের দিকে হাত বাড়াচ্ছে। তারা শ্রমিকসংকট কাটিয়ে উঠতে চায়। এর মধ্যদিয়ে আগামী তিন বছরে তারা রেকর্ড ভঙ্গ করে অভিবাসী নিতে চায়। অনলাইন নিউ ইয়র্ক টাইমস থেকে এ খবর জানা গেছে।

এতে বলা হয়, ২০২৩ থেকে ২০২৫ সালের মধ্যে ১৪ লাখ ৫০ হাজার অভিবাসীকে আকৃষ্ট করতে নতুন পলিসি নিয়েছে সরকার। গত মঙ্গলবার এ ঘোষণা দিয়েছেন কানাডার অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী সিন ফ্রাসার। তিনি বলেন, কানাডায় আরও মানুষ প্রয়োজন।

মন্ত্রী আরও বলেন, কিছু উদ্বেগজনক প্রবণতা হলো ক্রমবর্ধমান প্রবীণের সংখ্যা। দ্রুত বিপুলপরিমাণ মানুষ অবসরে যাবেন। এপ্রিলে প্রকাশিত শুমারি বলছে, কানাডায় অবসরে যাচ্ছেন যেসব মানুষ, তাদের সংখ্যা রেকর্ড পরিমাণ বেশি। যদি এই জনসংখ্যাতত্ত্বের ধারা সংশোধন না করি, তাহলে ১০ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে আমাদের যে শ্রমসংকট হবে তা পূরণ করতে পারব না। কানাডা দীর্ঘ সময় নিয়ে তার ক্রমবর্ধমান প্রবীণ এবং কম জন্মহারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে অভিবাসী নেওয়ার কৌশল নিয়েছে। এতে জনগণের সমর্থন আছে। গুরুত্বপূর্ণ শ্রমিকসংকট আছে যেসব খাতে যেমন স্বাস্থ্যসেবা, কলকারখানা, ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ব্যবসা-বাণিজ্যে এসব ক্ষেত্রে দক্ষ শ্রমিকই পছন্দ করে কানাডা।

এদিকে গত সপ্তাহে দেশটির একটি জনশুমারি বিষয়ক এজেন্সি ঘোষণা করেছে যে, কানাডায় প্রতি পাঁচ জন মানুষের মধ্যে কমপক্ষে একজন অভিবাসী। এনভায়রনিকস ইনস্টিটিউট ফর সার্ভে রিসার্চের নামের একটি অলাভজনক প্রতিষ্ঠান জরিপ করেছে। তাতে দেখা গেছে, শতকরা ৫৮ ভাগ মানুষ বলেছেন তারা অধিক অভিবাসী সমর্থন করেন। কিন্তু কানাডা কি এত বেশি অভিবাসী নিতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তরে অসম্মতি জানিয়েছেন শতকরা ৬৯ ভাগ মানুষ। জরিপে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে প্রায় অর্ধেকই মনে করেন, যারা নতুন করে কানাডায় যাবেন, তারা কানাডার মূল্যবোধ ধারণ করেন না। দ্য বেঙ্গলি টাইমস থেকে জানা যায়, গড়ে প্রতি বছর তারা প্রায় ২ লাখ ৩৫ হাজার নতুন অভিবাসীকে আশ্রয় দিয়েছে।

From 2023-2025 Canada Government Plans to Welcome 500000 Immigrants; How Can Apply

From 2023-2025 Canada Government Plans to Welcome 500000 Immigrants; How Can Apply

From 2023-2025 Canada Government Plans to Welcome 500000 Immigrants; How Can Apply Canada government aims to welcome 465,000 new permanent residents in 2023, 485,000 in 2024 and 500,000 in 2025 Canada has recently released its […]

বাংলাদেশের শিক্ষার্থীরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উচ্চতর শিক্ষা নেয়ার জন্য বেশ আগ্রহী। সাফল্যে অবদানও রাখছে তারা। স্কলারশিপ নিয়ে বাইরের দেশে পড়তে যাওয়ার জন্য কানাডা আছে প্রথম সারিতে। এইচএসসি ও অনার্স পাস করেই অনেক শিক্ষার্থী কানাডার বিভিন্ন কলেজগুলোতে আবেদন করে থাকেন। গত আট থেকে ১০ বছর ধরে বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রীরা কানাডার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে পাড়ি জমাচ্ছে।

তবে অনেকেই জানেন না, কীভাবে আবেদন করতে হয় কিংবা কীভাবে একটি ভালো স্কলারশিপ পাওয়া যায়। আজ জেনে নিন কীভাবে সহজে আপনি কানাডায় স্কলারশিপ পেতে পারেন। কীভাবে আবেদন করবেন তাও জেনে নিন-

কানাডার নামকরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ডিগ্রিসমূহ বিশ্বমানের তো বটেই, আমেরিকা এবং কমনওয়েলথভুক্ত অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রিরও সমতুল্য। তাছাড়া পড়াশোনা চলাকালীন কানাডার নাগরিকত্বও পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। কানাডায় একজন শিক্ষার্থী ইচ্ছা করলে দুইভাবে পড়ালেখা করতে পারে।

ফুলটাইম অথবা পার্টটাইম পড়াশোনায় এখানে রয়েছে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট, পোস্ট গ্র্যাজুয়েট, ডক্টরাল, পিএইচডি কোর্স। এখানকার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে আরো রয়েছে কো-অপারেটিভ এডুকেশন, ডিসট্যান্ট লার্নিং, কন্টিনিউয়িং এডুকেশন এবং স্টুডেন্ট এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের মতো আরো অনেক কোর্স ও পদ্ধতি। এখানে শিক্ষার দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য ওয়ার্কশপ ও কাউন্সেলিং ব্যবস্থা রয়েছে এবং আর্থিক সহযোগিতার জন্য বিভিন্ন স্কলারশিপ দেয়া হয়ে থাকে।

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এক্সচেঞ্জ স্কলারশিপে কানাডায় পড়ার সুযোগ

কানাডার একাডেমিক বছর সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হয়ে মে মাসে শেষ হয়। বছরে দুটি সেমিস্টার থাকে। সেপ্টেম্বর অথবা জানুয়ারি। তবে  সেমিস্টারে ভর্তির জন্য আবেদন প্রক্রিয়া আট মাস আগে শুরু করা ভালো। সব বিশ্ববিদ্যালয়েরই ওয়েব সাইড রয়েছে। সেখানে গিয়ে আপনি আবেদন করতে পারবেন। স্কলারশিপ আবেদনের সময়সূচি ও যোগ্যতাসমূহ জানতে আপনাকে তাদের ওয়েবসাইটসমূহ ভিজিট করতে হবে। প্রতি বছর ১৭৭ জনকে বৃত্তি প্রদান করা হয়। এছাড়াও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পর আপনি অনেক ধরনের বৃত্তির সুযোগ পাবেন। আপনার যোগ্যতা অনুযায়ী ১৬ থেকে ৫০ ডলার পর্যন্ত বৃত্তি পেতে পারেন। সঙ্গে ফ্রি রিচার্সের সুবিধা।

এই বৃত্তির আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু করতে আপনাকে অবশ্যই একটি কানাডিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের ডক্টরাল প্রোগ্রামে ভর্তি হতে হবে। তিন বছরের অধ্যয়নের জন্য এই বৃত্তির মূল্য প্রতি বছর ৫০ হাজার ডলার হয়। প্রতি বছর ছয়জন নতুন ছাত্রকে পুরষ্কার দেয়া হয়। প্রাপকদের অবশ্যই আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী হতে হবে। যাদের বৈধ কানাডিয়ান স্টাড পারমিট রয়েছে এবং পিএইচডি পর্যায়ে পূর্ণকালীন স্নাতক পড়াশোনা করার ইচ্ছা পোষণ করতে হবে।

কানাডায় আপনি যে বিষয়গুলোতে পড়তে পারবেন- 

কম্পিউটার সায়েন্স, বায়োলজি, ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, ফুড সায়েন্স, কনস্ট্রাকশন অ্যান্ড রিসোর্সেস, ইলেকট্রনিক্স, মেডিক্যাল সায়েন্স অ্যান্ড সার্ভিসেস, মেরিন অ্যাফেয়ার্স, এগ্রিকালচার, ইকোনোমিক্স, অ্যাপ্লায়েড কম্পিউটার সায়েন্স, ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট, অ্যারোস্পেস ইঞ্জিনিয়ারিং, অ্যাসট্রোনমি, অ্যাপ্লায়েড জিওগ্রাফি, আর্কিটেকচারাল সায়েন্স, সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেকট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল হেলথ, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন, এডুকেশন, হোম ইকোনোমিক্স, মিউজিক, ফিলোসফি, হিস্ট্রি অ্যান্ড রিলিজিওন, ইংলিশ, ল, থিয়েটারসহ আন্ডার গ্র্যাজুয়েট পর্যায়ে প্রায় ১০ হাজার বিষয় এবং পোস্ট গ্র্যাজুয়েট পর্যায়ে প্রায় তিন হাজার বিষয় পড়তে পারবেন।

Get CANADA Study Permit faster(20 days) through the Student Direct Stream (SDS): Apply Now

Get CANADA Study Permit faster(20 days) through the Student Direct Stream (SDS): Apply Now

Depending on where you live, you may be able to get your study permit faster through the Student Direct Stream (SDS). Government of Canada try to process most SDS applications within 20 calendar days. However, […]

স্কলারশিপের জন্য আপনার যোগ্যতা
> একাডেমিক এক্সিলেন্স (৮০% মার্কস) থাকতে হবে।
> রিসার্চ এবিলিটি (জার্নাল পাবলিকেশন) থাকতে হবে।
> ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ প্রফিসিয়েন্সি (স্কোর সাত দশমিক পাঁচ) থাকতে হবে। আইএলটিএস করতে হবে আপনাকে।
> কমিউনিকেশন ও লিডারশিপ দক্ষতা থাকতে হবে।
> গবেষণা ও প্রকৌশল দক্ষতা, প্রাকৃতিক বিজ্ঞান, মানবিকতা, সামাজিক বিজ্ঞান বা স্বাস্থ্য বিজ্ঞানের ধারণা থাকতে হবে।

কানাডায় স্কলারশিপসমূহ 

গভর্নমেন্ট অব কানাডা ইন্টারন্যাশনাল স্কলারশিপ প্রোগ্রাম: এই স্কলারশিপ মূলত গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডা প্রদান করে থাকে। যা কানাডা সরকার কর্তৃক প্রদান করা হয়ে থাকে।

ভ্যানিয়ার কানাডা গ্রাজুয়েট স্কলারশিপ প্রোগ্রাম: স্কলারশিপটি মূলত পিএইচডি স্টুডেন্টদের জন্য। প্রোগ্রামটি ৩ বছরের জন্য। প্রতি বছরের জন্য ৫০ হাজার ডলার প্রদান করা হয়ে থাকে।

কুইবেক গভর্নমেন্ট স্কলারশিপ অ্যান্ড গ্রান্টস: এটি প্রধানত পোস্ট ডক্টোরিয়াল ফলোশিদের জন্য। এটি অনেক সময় শর্টটাম রিসার্চ ও প্রফেশনাল ডেভেলপমেন্ট এর জন্য প্রদান করা হয়।

পিয়ারি এলিয়ট ট্রুডো ফাউন্ডেশন ডক্টোরিয়াল স্কলারশিপ: প্রতি বছর ১৫ জন আউস্টান্ডিং ডক্টরাল প্রার্থীকে দেয়া হয়। প্রতি বছর ৬০ হাজার ডলার প্রদান করা হয়। এই প্রোগ্রামটি ৪ বছরের জন্য হয়ে থাকে।

কানাডিয়ান কুইন এলিজাবেথ-২ ডায়মন্ড জুবিলী স্কলারশিপ: স্কলারশিপটি মূলত ইনোভেশন লিডার ও কমিউনিটি বিল্ডারদের দেয়া হয়। যারা কমনওয়েলথভুক্ত দেশ; তারাই শুধু মাস্টার্স ও ডক্টোরিয়াল প্রসূনের জন্য আবেদন করতে পারবে।

Global Scholarship

2022-2023 Canada Study, Work and Stay Here; Apply Online Now

2022-2023 Canada Study, Work and Stay Here; Apply Online Now Nowadays, Canada is a dream destination of study where international students can build a better future; therefore, you will find the needed information on the […]

এগুলো ছাড়াও রয়েছে 
অন্টারিও গ্রাজুয়েট স্কলারশিপ
অন্টারিও ট্রিলিয়াম স্কলারশিপ
ইউনিভার্সিটি অব ওয়াটার লু ইন্টান্যাশনাল মাস্টার্স অ্যান্ড ডক্টোরিয়াল অ্যাওয়ার্ডস
ইউনিভার্সিটি অব ম্যানিটোবা গ্রাজুয়েট ফেলোশিপস
ইউনিভার্সিটি অব ক্যালগ্যারি গ্রাজুয়েট অ্যাওয়ার্ডস
ইউবিসি গ্রাজুয়েট গ্লোবাল লিডারশিপ ফেলোশিপস
বান্টিং পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপস
কানাডা গ্রাজুয়েট স্কলারশিপ মাস্টার্স প্রোগ্রাম
কার্লিটোন ইউনিভার্সিটি অ্যাওয়ার্ডস ফর ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টস
ডালহাউস ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
ফেয়ারলেগ ড্যাকিন্সন স্কলারশিপ ফর ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্টস
ম্যাকগেইল ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
কুইন ইউনিভার্সিটি ইন্টারন্যাশনাল স্কলারশিপ
ইউনিভার্সিটি অব সাচকাচুয়ান ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ডস
সাইমন ফ্রেসার ইউনিভার্সিটি ফিন্যান্সিয়াল এইড অ্যান্ড অ্যাওয়ার্ডস
ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি ইন্টারন্যাশনাল অ্যাডমিশন স্কলারশিপ

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এক্সচেঞ্জ স্কলারশিপে কানাডায় পড়ার সুযোগ:

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এক্সচেঞ্জ স্কলারশিপে কানাডায় পড়ার সুযোগ

বেশ অসাধারণ একটা খবর পেলাম বাংলাদেশের কানাডিয়ান দূতাবাসের ফেসবুক পেজ থেকে। দেশের বাইরে পড়ার সময় দেখতাম, প্রায়ই বিশ্ববিদ্যালয়ে অন্য দেশ থেকে এক সেমিস্টারের জন্য স্কলারশিপ নিয়ে স্টুডেন্ট আসছে পড়ার জন্য। তাঁদের সঙ্গে কথা বলে জানতে পারি, তাঁরা ‘এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের স্টুডেন্ট’। আফসোস হতো যে বাংলাদেশের জন্য এমন এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম যদি কানাডাও চালু করত।
এখন কানাডা সরকার বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য নতুন বছরে অনেকটা উপহারস্বরূপ যেন ‘এডুকানাডা স্টাডি ইন স্কলারশিপ’–এ এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামটি চালু করল। বাংলাদেশের প্রতি তাদের এই বন্ধুসুলভ আচরণের জন্য সবার আগে কানাডা সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। ২০২১ সাল থেকে প্রতিবছর বাংলাদেশিদের এখন থেকে স্কলারশিপটি দেওয়া হবে।

স্কলারশিপটি কেমন

স্কলারশিপটি দেওয়া হয় কানাডা সরকারের গ্লোবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার আনুষ্ঠানিক সংস্থা ডিপার্টমেন্ট অব ফরেন অ্যাফেয়ার্স, ট্রেড অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ডিএফএটিডি) থেকে উন্নয়নশীল কয়েকটি দেশের আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও মাস্টার্স অধ্যয়নরত ছাত্রছাত্রীদের জন্য, যেন তাঁরা এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে ফুল ফিন্যান্সিয়াল সাপোর্ট নিয়ে কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় পড়তে আসতে পারেন। এই দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশকেও এই বছর থেকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এশিয়া থেকে আছে মাত্র তিনটি দেশ—বাংলাদেশ, নেপাল, তাইওয়ান।

কারা আবেদন করতে পারবেন

বর্তমানে বাংলাদেশে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্ডারগ্র্যাজুয়েট কিংবা মাস্টার্সে পড়াশোনা করছেন, এমন যে কেউ আবেদন করতে পারবেন। বিশেষত আন্ডারগ্র্যাজুয়েট যাঁরা পড়ছেন, এটা তাঁদের জন্য সত্যিই একটা বড় সুযোগ বলে আমি মনে করি। থিওরিটিক্যালি বাংলাদেশে পিএইচডি অধ্যয়নরত যে কেউ এখানে আবেদন করতে পারেন। কিন্তু যেহেতু অধিকাংশ বাংলাদেশি আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ও মাস্টার্সে অধ্যয়নরত, তাই আমার নিবন্ধটি শুধু তাঁদের ওপর ফোকাস করে লেখা।
বৃত্তি কত দিনের
চার মাস বা এক সেমিস্টারের জন্য স্কলারশিপটি দেওয়া হবে। এই একটা সেমিস্টার আপনি কানাডায় এসে কোনো একটা নির্দিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে কোর্সওয়ার্ক বা রিসার্চ ওয়ার্ক ইত্যাদি সম্পন্ন করবেন। এর যাবতীয় খরচ কানাডা সরকার বহন করবে।

এ স্কলারশিপে কী কী সুবিধা

যাঁরা এই বৃত্তির জন্য মনোনীত হবেন, তাঁরা ১০ হাজার ২০০ কানাডিয়ান ডলার পাবেন ৪ মাসের জন্য। বাংলদেশি টাকায় সাড়ে ৬ লাখের বেশি (১ কানাডিয়ান ডলার সমান ৬৬ টাকা ৯৩ পয়সা)। পুরোটা ট্যাক্স ফ্রি! ছয় মাসের রিসার্চের জন্য যে মাস্টার্সের শিক্ষার্থীরা আসবেন, তাঁরা ১২ হাজার ৭০০ কানাডিয়ান ডলার পাবেন (প্রায় সাড়ে ৮ লাখ টাকা)। স্কলারশিপটির স্কিম অনুযায়ী শিক্ষার্থীর কোনো টিউশন ফি থাকবে না কানাডাতে এই এক সেমিস্টার পড়ার জন্য। তাই এই টাকা দিয়ে মূলত ভিসা ফি, আসা–যাওয়ার প্লেনের টিকিট, থাকার খরচ, হেলথ ইনস্যুরেন্সসহ আনুষঙ্গিক সব খরচ বহন করা হবে। অর্থাৎ শিক্ষার্থীকে এক পয়সাও ব্যয় করতে হবে না। এ তো গেল ফিন্যান্সিয়াল সুবিধা। আর এখানে কানাডায় এসে ইন্টারন্যাশনাল নেটওয়ার্কিং, প্রফেসরদের সঙ্গে রিসার্চ করার অভিজ্ঞতা, ক্লাস করার অভিজ্ঞতা তো থাকছেই।

বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের এক্সচেঞ্জ স্কলারশিপে কানাডায় পড়ার সুযোগ

আবেদন কীভাবে করতে হবে

আবেদন নিজে নিজে সাবমিট করা যাবে না, করতে হবে বাংলদেশের নিজ নিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাধ্যমে। নিজেদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্টাল হেড বা ডিনকে গিয়ে বলতে হবে এই স্কলারশিপের কথা। তিনি নাম–পরিচয় উল্লেখ করে যাবতীয় ডকুমেন্টসহ অনলাইনে আবেদন জমা দেবেন কানাডায় যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে শিক্ষার্থীর আসতে চান এই স্কলারশিপের অধীনে, সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে। অনলাইনে আবেদনপত্র জমা দেওয়ার জন্য ডিএফএটিডির অনলাইন পোর্টালে মোমেন্টাম অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে (https://bit.ly/2HCbLg1)। আবেদন অনলাইনে সাবমিট করলে সেটা পাওয়ার পরে কানাডার সেই বিশ্ববিদ্যালয় ডিএফএটিডি প্রার্থীর জন্য ফাইনাল আবেদন সাবমিট করবে। এই হলো ধাপগুলো।
কানাডার কোন কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে আবেদন করা যাবে
ডেজিগনেটেড লার্নিং ইনস্টিটিউট (ডিএলআই) যুক্ত যেকোনো কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি। ডিএলআই বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকা দেখার জন্য কানাডা সরকারের অফিশিয়াল www.canada.ca ওয়েবসাইটে ঢুঁ মারতে হবে।

কী কী ডকুমেন্ট প্রয়োজন

নিচের ডকুমেন্টগুলো পিডিএফ বা ইমেইজ ফাইল আকারে অনলাইনে আপলোড করতে হবে। খেয়াল রাখা দরকার যে প্রতিটি ডকুমেন্টের সাইজ যেন পাঁচ মেগাবাইটের কম হয়। না হলে অনলাইনে আপলোড করতে পারবেন না। ডকুমেন্ট লিস্ট—
১. প্রুফ অব সিটিজেনশিপ: পাসপোর্ট/বার্থ সার্টিফিকেট হলেই হবে।
২. প্রুফ অব ফুলটাইম এনরোলমেন্ট: নিজ নিজ ইউনিভার্সিটির ডিপার্টমেন্ট থেকে এটা লেটারহেডে নিতে হবে।
৩. লেটার অব ইনটেন্ট: এখানে প্রার্থীকে লিখতে হবে, স্কলারশিপের মোটিভেশন লেটারের মতো করে।
৪. নেটার অব সাপোর্ট ফ্রম দ্য হোম ইনস্টিটিউশন: ডিপার্টমেন্টাল হেড বা ডিন প্রাতিষ্ঠানিক লেটার হেডে প্রার্থীর নামসহ উল্লেখ করবেন।
৫. লেটার অব ইনভাইটেশন ফ্রম দ্য কানাডিয়ান সুপারভাইজার: এটা শুধু যাঁরা মাস্টার্সে পড়ছেন এবং এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে কোনো কানাডিয়ান প্রফেসরের ল্যাবে রিসার্চ করতে আসতে চান, তাঁদের আপলোড করতে হবে। আন্ডারগ্র্যাজুয়েট যাঁরা কোর্সওয়ার্ক করতে আসতে চান, তাঁদের এটার দরকার নেই। কিন্তু আন্ডারগ্র্যাজুয়েট স্টুডেন্ট, যাঁরা রিসার্চ করতে আসতে চান, তাঁদের আবার লাগবে এটা। ওই কানাডার ইউনিভার্সিটির কোনো একজন সুপারভাইজার, যিনি কিনা প্রাতিষ্ঠানিক লেটারহেডে লিখবেন যে তিনি আপনাকে চার মাস মেন্টরশিপ করতে রাজি আছেন, এমন একটা প্রত্যয়নপত্র জমা দিতে হবে।
৬. সাইনড কপি অব মেমোরেন্ডাম অব আন্ডারস্ট্যান্ডিং (এমওইউ): আবেদনকারী প্রার্থীর বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভাগীয় প্রধান বা ডিন কানাডার যে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী পড়তে আসতে চান, তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেই তারা এমওইউ ফরম্যাট জানিয়ে দেবে। সেখানে দুই বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিপার্টমেন্টের ডিন বা হেডের স্বাক্ষর থাকবে আর বলা থাকবে যে বাংলদেশ থেকে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হিসেবে আপনাকে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামে কানাডায় পাঠানো হচ্ছে। কী উদ্দেশ্যে বা কী করবেন, সেখানে এসব লেখা থাকবে। আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ শর্তাবলির উল্লেখ থাকতে হবে, যেমন কানাডায় থাকার সময় ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুল টিউশন ফি মওকুফ করার বিষয়টির অবশ্যই উল্লেখ থাকবে। মোট কথা এমওইউ, এটা কানাডার ও আপনার বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটা পারস্পরিক বোঝাপড়াসহ কিছু শর্তযুক্ত একটা চুক্তির মতো।

শ্রমবাজারের ঘাটতি পূরণ ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আগামী ৩ বছরে কানাডা সরকার ১২ লাখ অভিবাসী নিবে

অন্তর্জাল

শ্রমবাজারের ঘাটতি পূরণ ও অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আগামী ৩ বছরে কানাডা সরকার ১২ লাখ অভিবাসী নিবে

মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে শ্রমবাজারের ঘাটতি পূরণ এবং অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে আগামী তিন বছরে ১২ লাখেরও বেশি অভিবাসী গ্রহণের পরিকল্পনা করেছে কানাডা সরকার। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) আল-জাজিরার একটি প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, […]

Do you want to come to Canada; for study, work, visit or live permanently in Canada?

Do you want to come to Canada; for study, work, visit or live permanently in Canada?

Do you want to come to Canada, or extend your stay? COVID-19: Safety measures Find out if you’re affected by the coronavirus (COVID-19)Need help? Find out if you are eligible to apply Do you want […]

 

USA Green Card-DV Lottery Program 2023

US Green Card-DV Lottery Program 2023 -Application Deadline: Oct. 15th, 2021!

US Green Card-DV Lottery Program Only until October 15th, 2021, you can apply for the official DV Lottery 2023! What is the DV Lottery? The Diversity Visa Program (DV Lottery) is congressionally-mandated and allows up to […]

ফুল ফ্রি বৃত্তি নিয়ে USA কানাডা UK ফিনল্যান্ডে পড়তে চান? আবেদনের নিয়ম

ফুল ফ্রি বৃত্তি নিয়ে USA কানাডা UK ফিনল্যান্ডে পড়তে চান আবেদনের নিয়ম

সেরা ১৬টি ফুল ফ্রি বৃত্তি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে পড়তে চান?

বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছে বৃত্তি নিয়ে পড়াশোনার জন্য পছন্দের তালিকার শীর্ষে আছে যুক্তরাষ্ট্র। বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের অসংখ্য শিক্ষার্থী বৃত্তি নিয়ে এই দেশে পড়তে যান। বিশ্বের বড় বড় প্রতিষ্ঠান যেমন গুগল, অ্যান্ড্রয়েড, অ্যাপল, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইনস্টাগ্রাম, ইউটিউব, মেটা, এয়ারবাস, বোয়িং, ওয়ালমার্ট ও অ্যামাজন আছে। যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা শেষে ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে অনেকেই এসব প্রতিষ্ঠানে চাকরির সুযোগ পেয়ে যান। এ কারণে অনেকেই এখন পড়াশোনার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে বেছে নিচ্ছেন।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য প্রায় পাঁচ হাজার ফুল ফ্রি স্কলারশিপ ঘোষণা করেছে দেশটির বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি প্রোগ্রামে বিদেশি শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি দেওয়া হবে। এ ছাড়া দেশটিতে বিনিময় প্রোগ্রামে শতাধিক বৃত্তি আছে। ফুল ফ্রি বৃত্তির আওতায় নিজ দেশ থেকে যুক্তরাষ্ট্র আসা-যাওয়ার বিমান টিকিট, আবাসন, খাবার, মাসিক ভাতা, ফিসা ফি, টিউশন ফি ও স্বাস্থ্য সুবিধা পাওয়া যায়।

এসব বৃত্তি পাওয়ার জন্য মোটিভেশন লেটার, রেকমেন্ডেশন লেটার ও গবেষণা প্রস্তাব মুখ্য ভূমিকা পালন করে। তাই বৃত্তি পেতে এসব বিষয়ে মনোযোগী হতে হবে। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি ফুল ফ্রি স্কলারশিপের তথ্য তুলে ধরা হলো।

১. ফুলব্রাইট স্কলারশিপ
এই বৃত্তি যুক্তরাষ্ট্র সরকারের একটি ফুল ফ্রি স্কলারশিপ। স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি প্রোগ্রামে বিদেশি শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি দেওয়া হয়। ফুলব্রাইট বৃত্তির সুবিধার মধ্যে রয়েছে যাতায়াত ভাতা, শিক্ষাদান ও সংশ্লিষ্ট একাডেমিক ফি, মাসিক বৃত্তি, বইপত্র ক্রয়ের ভাতা, ভিসা ফি ও স্বাস্থ্যবিমা।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now Top 25 Scholarships in Sweden for International Students: Up until 2010,  Sweden has been one of the few countries in Europe […]

২. ফুলব্রাইট স্কলার প্রোগ্রাম
এক বছর মেয়াদি এই বৃত্তি স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি প্রোগ্রামে বিদেশি শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তি দেওয়া হয়। ফুলব্রাইট স্কলার প্রোগ্রাম সুবিধার মধ্যে রয়েছে যাতায়াত ভাতা, গবেষণা ভাতা, মাসিক বৃত্তি, ভিসা ফি ও স্বাস্থ্যবিমা।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৩. হিউবার্ট এইচ হামফ্রে ফেলোশিপ
হিউবার্ট এইচ হামফ্রে ফেলোশিপ এক বছর মেয়াদি ও এটি সরকারি ও বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত পেশাজীবীদের দেওয়া হয়। হামফ্রে কর্মসূচি প্রয়াত মার্কিন সিনেটর ও ভাইস প্রেসিডেন্ট হিউবা‍র্ট এইচ হামফ্রের স্মৃতি ও কৃতিত্বের প্রতি সম্মান জানাতে ১৯৭৮ সালে চালু করা হয়।

এই ফেলোশিপের আওতায় নির্ধারিত বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পূর্ণ টিউশন ফি দেওয়া হয়। প্রয়োজন হলে প্রাক্‌-একাডেমিক ইংরেজি ভাষা প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এ ছাড়া জীবনযাত্রার ব্যয় ভাতা; এককালীন সেটলিং ভাতা; দুর্ঘটনা ও অসুস্থতাজনিত ব্যয় ভাতা; বই কেনার খরচ; কম্পিউটার কেনার জন্য এককালীন ভাতা; বিমান ভ্রমণ ভাতা (প্রোগ্রামের জন্য যুক্তরাষ্ট্র থেকে আন্তর্জাতিক ভ্রমণ ও প্রয়োজনীয় প্রোগ্রাম ইভেন্টে অভ্যন্তরীণ ভ্রমণ) ও ফেলোশিপের জন্য প্রয়োজনীয় পেশাদার উন্নয়ন ভাতা (যেমন ফিল্ড ট্রিপ, পেশাদার পরিদর্শন ও সম্মেলন) দেওয়া হয়।

এই ফেলোশিপ–সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৪.স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
এটি একটি বহুল পরিচিত বৃত্তি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাইট হেনেসি স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ ১০০টি ফুল ফ্রি বৃত্তির ঘোষণা দিয়েছে। স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি প্রোগ্রামে এই বৃত্তি দেওয়া হবে।

এই বৃত্তির আওতায় যাতায়াত ভাতা, ভ্রমণ ভাতা, টিউশন ফি ও জীবনযাত্রার ব্যয় নির্বাহের মাসিক ভাতা দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৫. ইয়েল ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
এই বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে এই বৃত্তি দেওয়া হয়। এই বৃত্তির আওতায় যাতায়াত ভাতা, টিউশন ফি, আবাসন, খাবার, ভ্রমণ ভাতা ও প্রথম বছরে দুই হাজার ডলারসহ স্বাস্থ্যবিমার সুযোগ দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৬. বিল গেটস স্কলারশিপ
এক শিক্ষাবর্ষে তিন শতাধিক বিদেশি শিক্ষার্থীকে বিল গেটস স্কলারশিপ দেওয়া হয়। এই বৃত্তির আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনাসহ সব ধরনের খরচ দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৭. ইউনিভার্সিটি অব নিউ হ্যাভেন স্কলারশিপ
ইউনিভার্সিটি অব নিউ হ্যাভেন প্রতিবছর বিদেশি শিক্ষার্থীদের ফুল ফ্রি বৃত্তি দেয়। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে শুধু স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এবার বৃত্তি দেওয়া হবে।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

. এএইউডব্লিউ ইন্টারন্যাশনাল ফেলোশিপ
এএইউডব্লিউ ইন্টারন্যাশনাল ফেলোশিপ প্রোগ্রাম একটি ফুল বৃত্তি বৃত্তি। আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব ইউনিভার্সিটি উইমেন এই বৃত্তি দেয়। নারীদের জন্য এটি দারুণ একটি বৃত্তি। স্নাতকোত্তর, ডক্টরাল, পোস্ট ডক্টরাল পর্যায়ে এই বৃত্তি দেওয়া হয়।

এই বৃত্তির আওতায় স্নাতকোত্তর পর্যায়ে ২০ হাজার ডলার, ডক্টরাল পর্যায়ে ২৫ হাজার ডলার ও পোস্ট ডক্টরাল পর্যায়ে ৫০ হাজার ডলার অনুদান দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

৯. বোস্টন ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বোস্টন ইউনিভার্সিটি ট্রাস্টি স্কলারশিপ ও বোস্টন ইউনিভার্সিটি প্রেসিডেন্সিয়াল স্কলারশিপ নামে দুই ধরনের বৃত্তি দেওয়া হয়। ট্রাস্টি স্কলারশিপে টিউশন ফি ফ্রি ও প্রেসিডেন্সিয়াল স্কলারশিপে বার্ষিক ২৫ হাজার ডলার অনুদান দেওয়া হয়। স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে এই বৃত্তি দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

Tuition Free Universities in Canada; Apply for admission 2023-2024

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission Studying a professional course in any tuition free universities in Canada has been seen as something most people has seen as inexpensive compared to other countries […]


১০. হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটি এমবিএ স্কলারশিপ যুক্তরাষ্ট্রের জনপ্রিয় বৃত্তিগুলোর মধ্যে অন্যতম। এমবিএ প্রোগ্রাম এই বৃত্তি দেওয়া হয়।

দুই বছর মেয়াদি এই বৃত্তির আওতায় ৭৫ শতাংশ টিউশন ফি, ভ্রমণ ও আবাসন ভাতা দেওয়া হয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

১১. গুগল স্কলারশিপ
গুগল যুক্তরাষ্ট্রে বিদেশি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দিয়ে থাকে। ২০২২ সালে এই প্রতিষ্ঠান প্রায় এক লাখ বিদেশি শিক্ষার্থীর জন্য বৃত্তির ঘোষণা দিয়েছে।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

১২. জর্জিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ
আটলান্টার জর্জিয়া ইউনিভার্সিটি স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডি পর্যায়ে বিদেশি শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেয়।

এই বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইট থেকে জানা যাবে।

এ ছাড়া বিদেশি কলেজ পর্যায় এবং স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের আওতায় যুক্তরাষ্ট্রে বিদেশি শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তি দেওয়া হয়। এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো—

সুসি স্টুডেন্ড লিডারশিপ প্রোগ্রাম
ছয় মাস মেয়াদি এই প্রোগ্রামে বিনা মূল্যে পড়াশোনা করা যায়। নারী ও পুরুষ উভয়েই এই প্রোগ্রামের জন্য আবেদন করতে পারবেন। এই প্রোগ্রামে আবেদনের জন্য আইইএলটিএস/ টোফেল স্কোরের প্রয়োজন নেই। এই প্রোগ্রামের আওতায় ভিসা ফি, ভ্রমণ ভাতা, মাসিক ১ হাজার ৫০০ ডলার বৃত্তি, খাবার, আবাসন ও যোগাযোগের খরচ দেওয়া হয়।

সুসি স্টুডেন্ড লিডারশিপ প্রোগ্রামের বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

ইউপিজি লিডারশিপ প্রোগ্রাম
বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য ইউপিজি (ইউনাইটেড পিপল গ্লোবাল) লিডারশিপ প্রোগ্রামের আওতায় বৃত্তি দেওয়া হয়। ৩০টি দেশ থেকে মোট ৬০ জনকে এই বৃত্তি দেওয়া হয়।

এই প্রোগ্রামের বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

কমিউনিটি সল্যুশনস এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রাম
চার মাস ফেলোশিপসহ এক বছর মেয়াদি এই প্রোগ্রামের আওতায় ভিসা সাপোর্ট, নিজ দেশ থেকে যাতায়াতে বিমানের টিকিট, মাসিক ভাতা এবং দুর্ঘটনা ও স্বাস্থ্যবিমা দেওয়া হয়। এই প্রোগ্রামে আবেদনের জন্য আইইএলটিএস/ টোফেল স্কোরের প্রয়োজন নেই।

এই প্রোগ্রামের বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

হ্যানসেন লিডারশিপ ইনস্টিটিউট প্রোগ্রাম
এই ইনস্টিটিউট বিদেশি শিক্ষার্থীদের তিন সপ্তাহব্যাপী এক্সচেঞ্জ প্রোগ্রামের সুযোগ দেয়। এই প্রোগ্রামের আওতায় আবাসন, স্বাস্থ্যবিমা, পরিবহনের সুবিধা, প্রোগ্রামের সরঞ্জাম, খাবার, ভিসা ফি ও নিজ দেশ থেকে যাতায়াতে বিমান টিকিট দেওয়া হয়।

এই প্রোগ্রামের বিস্তারিত তথ্য এই ওয়েবসাইটে জানা যাবে।

কানাডায় বিনা খরচে পড়তে আবেদন করুন দ্রুত

স্নাতকোত্তর ও ডক্টরাল পর্যায়ে কানাডায় স্কলারশিপ পেতে বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আবেদন গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছে দ্য ন্যাচারাল সায়েন্সেস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ কাউন্সিল অব কানাডা। ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের জন্য কানাডা গ্র্যাজুয়েট স্কলারশিপ প্রোগ্রাম নামে এই বৃত্তি দেওয়া হবে। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরাও এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। ১ ডিসেম্বরের মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

কানাডা গ্র্যাজুয়েট স্কলারশিপ-মাস্টার্স (সিজিএস-এম) প্রোগ্রামের উদ্দেশ্য শিক্ষার্থী গবেষণার দক্ষতা বাড়ানো ও প্রশিক্ষণ প্রদান। স্নাতকোত্তর ও ডক্টরাল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের এই প্রোগ্রামের আওতায় আর্থিক সুবিধাও দেবে। এটি একটি ফুল ফ্রি বৃত্তি। দ্য কানাডিয়ান ইনস্টিটিউটস অব রিসার্চ (সিআইএইচআর), দ্য ন্যাচারাল সায়েন্সেস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং রিসার্চ কাউন্সিল (এনএসইআরসি) ও দ্য সোশ্যাল সায়েন্সেস অ্যান্ড হিউম্যানিটিস রিসার্চ কাউন্সিল (এসএসএইচআরসি) যৌথভাবে এই বৃত্তি দিয়ে থাকে। প্রতিবছর বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে তিন হাজারের বেশি শিক্ষার্থীকে এই বৃত্তি দেওয়া হয়। 

যোগ্যতা

  • সিজিএস-এম অ্যালোটমেন্টভুক্ত কানাডার কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতকোত্তর বা ডক্টরাল লেভেলে ভর্তির জন্য আবেদন করতে হবে।
  • ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে আগের পড়াশোনা শেষ করতে হবে।
  • এই প্রোগ্রামের আওতায় এক বছর কানাডায় থাকতে হবে।
  • সিআইএইচআর, এনএসইআরসি বা এসএসএইচআরসি থেকে আগে কোনো বৃত্তি পেলে আবেদন করার প্রয়োজন নেই।

আবেদন যেভাবে
আগ্রহী প্রার্থীদের অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। এনএসইআরসির ওয়েবসাইটে গিয়ে রিসার্চ পোর্টালের এই লিংক আবেদন করতে হবে। বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই লিংকে জানা যাবে।

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

Looking to Move to the US Or Study USA ? Lucky for you, your dream may become a reality! Thanks to the green card lottery anyone from an eligible country can become the lucky winner […]

স্নাতকোত্তরে বৃত্তি দিচ্ছে যুক্তরাজ্যের নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়

বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির আওতায় স্নাতকোত্তর পড়ার সুযোগ দিচ্ছে যুক্তরাজ্যের সরকারি নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়। ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে ডেভেলপিং সল্যুশনস মাস্টার্স স্কলারশিপ নামের ওই বৃত্তির জন্য বাংলাদেশসহ আফ্রিকা, দক্ষিণ এশিয়া ও কমনওয়েলথভুক্ত নির্ধারিত দেশের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের শেষ সময় আগামী ১৭ মে।

যেসব অনুষদভুক্ত বিষয়ে স্নাতকোত্তর করা যাবে—

  • প্রকৌশল অনুষদ।
  • মেডিসিন ও স্বাস্থ্যবিজ্ঞান অনুষদ।
  • বিজ্ঞান অনুষদ।
  • সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ।

সুযোগ-সুবিধা
এই বৃত্তির আওতায় নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি সম্পূর্ণ বা অর্ধেক মওকুফ করা হবে।

আবেদনের যোগ্যতা

  • বাংলাদেশসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে উল্লিখিত দেশের নাগরিক হতে হবে।
  • আন্তর্জাতিক ও নতুন শিক্ষার্থী হতে হবে।
  • যুক্তরাজ্যে ইতিমধ্যে পড়াশোনা করলে আবেদন করতে পারবেন না।
  • এর আগে নিজ দেশের বাইরে পড়াশোনা করলে আবেদন করতে পারবেন না।

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

CANADA VISA HELP CENTER

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]

আবেদন যেভাবে

এই বৃত্তির আবেদন করতে আগে নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পূর্ণকালীন স্নাতকোত্তর প্রোগ্রামে আবেদন করে ভর্তির সুযোগ পেতে হবে। ভর্তির আবেদনপ্রক্রিয়া, প্রয়োজনীয় যোগ্যতা, শর্তাবলি ও ভাষাগত দক্ষতার বিবরণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের এই লিংক থেকে জেনে নিতে হবে।

ভর্তির সুযোগ পাওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটের এই লিংক থেকে বৃত্তির জন্য আবেদন করতে হবে। বৃত্তির জন্য আবেদনের সহায়তা পেতে scholarship-assistant@nottingham.ac.uk এই ঠিকানায় ই-মেইলে যোগাযোগ করতে হবে। বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য এই লিংক থেকে জানা যাবে।

আবেদনের শেষ সময়: ১৭ মে ২০২৩।

ফিনল্যান্ডে বৃত্তি নিয়ে স্নাতকোত্তর পড়তে চান

ফিনল্যান্ডের তুরকু বিশ্ববিদ্যালয় বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তির ঘোষণা দিয়েছে। ২০২৩ শিক্ষাবর্ষে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এই বৃত্তি দেওয়া হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে ছয়টি বিষয়ে স্নাতকোত্তর পর্যায়ে এই বৃত্তি দেওয়া হবে। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরাও এই বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। আগ্রহীদের ১৮ জানুয়ারির মধ্যে অনলাইনে আবেদন করতে হবে।

যেসব বিষয়ে স্নাতকোত্তর করা যাবে

  • অর্থনীতি ও ব্যবসায় প্রশাসন
  • শিক্ষা
  • হেলথ অ্যান্ড বায়োমেডিকেল সায়েন্সেস
  • টেকনোলজি অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং
  • ন্যাচারাল সায়েন্সেস
  • সোশ্যাল সায়েন্সেস অ্যান্ড হিউম্যানিটিস

সুযোগ–সুবিধা

মোট তিন ক্যাটাগরিতে এই বৃত্তি দেওয়া হবে। প্রথম ক্যাটাগরিতে দুই বছর মেয়াদি প্রোগ্রামের জন্য টিউশন ফি ফ্রি। দ্বিতীয় ক্যাটাগরিতে দুই বছর মেয়াদি প্রোগ্রামের জন্য টিউশন ফি ৫০ শতাংশ ফ্রি। আর তৃতীয় ক্যাটাগরি হলো প্রথম বছর ভালো ফলের ভিত্তিতে দ্বিতীয় বছর ইনসেনটিভ বৃত্তি।

যোগ্যতা

  • ১. নিজ দেশে স্বীকৃত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে স্নাতক ডিগ্রি সম্পন্ন হতে হবে।
  • ২. স্নাতক ডিগ্রি ১৮০ ইউরোপীয়ান ক্রেডিটের সমমান হতে হবে। অথবা অন্তত তিন বছর মেয়াদি ডিগ্রি হতে হবে।
  • ৩. যে বিষয়ে স্নাতক ডিগ্রি সম্পন্ন হয়েছে সে–সংক্রান্ত বিষয়ে স্নাতকোত্তরের জন্য আবেদন করতে হবে।
  • ৪. প্রতি বিষয়ে আবেদনের জন্য আলাদা আলাদা যোগ্যতা পূরণ করতে হবে। ভাষাগত যোগ্যতাও লাগবে। এই ওয়েবসাইটে বিষয়ভিত্তিক যোগ্যতা ও ভাষাগত যোগ্যতার বিবরণ দেখে নিতে হবে।

আবেদন যেভাবে

আগ্রহী প্রার্থীদের এই ওয়েবসাইট থেকে বৃত্তিসংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে হবে। এরপর একই ওয়েবসাইটের এই লিংকে ফরম পূরণের মাধ্যমে আবেদন করতে হবে। আবেদনের পদ্ধতি একই লিংকে থেকে জানা যাবে।

আবেদনের শেষ সময়: ১৮ জানুয়ারি ২০২৩।

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায়

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায়

দেশের বাইরে উচ্চশিক্ষা: কেন করবেন? খরচ কত? কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে? গ্লোবাল স্কলারশিপ লাভের উপায় !

বিদেশে উচ্চশিক্ষা করতে যাওয়া অনেকের কাছে সোনার হরিণ। আবার কারো কাছে পান্তা ভাত। সবাই বিদেশের স্টুডেন্ট ভিসা পান না।
আবার অনেকেই আছে যারা একটু চেষ্টা করলেই বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি ও ভিসা পাবে। এটি হয় শিক্ষার্থীর যোগ্যতার বলে।

এমনকি স্কলারশিপও পেয়ে যাবে। নিশ্চই আপনার মনে প্রশ্ন জাগছে, কারা সেই সৌভাগ্যের অধিকারী। আবার হত ভাগাটাই বা কে?

কেন বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য যাবেন। কিভাবে যাবেন এবং কোন দেশে পড়তে গেলে আপনার জন্য ভালো হবে। এই প্রশ্নগুলোর উত্তর পেতে
মনোযোগ দিয়ে নিচের লেখাটি পড়ুন।

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now Top 25 Scholarships in Sweden for International Students: Up until 2010,  Sweden has been one of the few countries in Europe […]

কেন বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করবেন?

যদি খরচের কথা চিন্তা করেন তাহলে দেশের সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়ে ভালো অপশন নেই। তার পর কেন বিদেশে পড়তে চায়?
কারণ পড়াশোনার মান, কর্ম সংস্থান ও নিরাপদ জীবন যাপনের উপর যারা গুরুত্ব দেন, তারাই বিদেশী বিশ্ববিদ্যলয়ে ভর্তি হতে চায়।
বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয় গুলো সাধারণত ছাত্র রাজনীতি মুক্ত থাকা ও খাওয়ার মান অনেক ভলো। পড়াশোনার মান তো আছেই।
বিশ্বের সেরা বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর বেশির ভাগই আমেরিকা, ইংল্যান্ড, কানাডা, জার্মানী, ফ্রান্স, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, নেদারল্যান্ড অবস্থিত।

এছাড়াও ফিনল্যান্ড, অস্ট্রিয়া, আয়ারল্যান্ড, সুইজারল্যান্ড, স্কটল্যান্ড, বেলজিয়াম, মালয়েশিয়া, চায়না, ইন্ডিয়াসহ উন্নত দেশ গুলোতে অবস্থিত।
তাই যদি আপনার আর্থিক স্বচ্ছলতা থাকে তাহলে জীবনের সবচেয়ে বেটার বিনিয়োগটা বিদেশে পড়া লেখার জন্যই করুন।
আর যদি স্কলারশিপ পেয়ে যান, তাহলে তো সোনায় সোহাগা।

কিভাবে বিদেশে স্টুডেন্ট ভিসা পাবেন?

ধরেন আপনি কানাডার একটি বিশ্ববিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যেতে চান। তাহলে আপনার প্রথম কাজ হল সে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যাওয়ার জন্য নিজেকে প্রস্তুত করা।
প্রস্ততি বলতে আমি বলছি না যে শুধু ভাল ফল অর্জন করলেই চলবে। বরং যে দেশে উচ্চশিক্ষার জন্য যেতে চান সে দেশের আর্থ সামাজিক অবস্থা সম্পর্কে ভালো ধরণা নিতে হবে।

সংশ্লিষ্ঠ দেশের বা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশের সাথে নিজেকে মানিয়ে নেওয়ার যোগ্যতাটাও তৈরি করতে হবে। সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয় আপনাকে ভর্তির প্রাথমিক অনুমতি জানিয়ে যে
চিঠি দিবে তাই অফার লেটার। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক প্রদত্ত অফার লেটার প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে বার বার পড়তে হবে। ভালভাবে জেনে নিন টিউশন ফির পরিমাণসহ অন্যান্য বিষয়।

Tuition Free Universities in Canada; Apply for admission 2023-2024

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission Studying a professional course in any tuition free universities in Canada has been seen as something most people has seen as inexpensive compared to other countries […]

স্কলারশিপ পাওয়ার জন্য করণীয় কি?

স্কলারশিপের জন্য দরকার হল, ভালো রেজাল্ট, ভাষা দক্ষতা, সময়মত পরিকল্পনা গহন ও নিরলস প্রচেষ্টা। এ কয়টি জিনিসই বিদেশে উচ্চশিক্ষা বৃত্তি পাওয়ার পূর্বশর্ত। এ বিষয়গুলো যথা যথভাবে পালন করলেই স্কলারশিপ খুব সহজেই হাতে নাগালে চলে আসবে। অন্যথায় পণ্ডশ্রমই করে যেতে হবে। তখন স্কলারশিপ নামক সোনার হরিণ আর ধরা দেবে না। মনে রাখতে হবে যে শিক্ষার্থী দেশে স্কলারশিপ
পাওয়ার জন্য যোগ্য সে বিদেশেও বৃত্তি পাওয়ার যোগ্য। রেজাল্ট খারাপ, ইংরেজিতে ভালো দক্ষতা নেই এমন শিক্ষার্থীর জন্য কিন্তু ফুল স্কলারশিপ পাওয়ার সম্ভনা কম।
হাঁ সে আংশিক স্কলারশিপ পেতে পারে।মূলত দেখার বিষয় হল, সংশ্লিষ্ঠ বিশ্ববিদ্যালয় বা কলেজ উচ্চশিক্ষা বৃত্তির জন্য যা চায় আপনার তা আছে কিনা?
বিদেশে উচ্চশিক্ষা বৃত্তি জন্য Youth Opportunities, youth carnival, খোলা বাক্স, এর মত ওয়েবসাইট গুলো ভিজিট করতে পারেন।
অথবা যে দেশে বা যে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করতে চান সে দেশ বা বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর নিজস্ব ওয়েব সাইট নিয়মিত ভিজিট করতে হবে। এবং খেয়াল রাখতে হবে কখন তারা উচ্চশিক্ষা বৃত্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাল করে।

আপনি কোন দেশে উচ্চশিক্ষার জন্য যেতে চান?

নিচের টেবিল থেকে যে দেশের পড়াশোনা ও স্কলারশিপের সুযোগ সম্পর্কে জানতে চান তার উপরে ক্লিক করে বিস্তারিত পড়ুন।

মালয়েশিয়ায় উচ্চশিক্ষা ভারতে উচ্চশিক্ষা চীনে উচ্চশিক্ষা
ইউকে উচ্চশিক্ষা কানাডা উচ্চশিক্ষা আমেরিকায় উচ্চশিক্ষা
সৌদিআরবে উচ্চশিক্ষা তুরস্কে উচ্চশিক্ষা হাঙ্গেরিতে উচ্চশিক্ষা
জাপানে উচ্চশিক্ষা জার্মানীতে উচ্চশিক্ষা সিঙ্গাপুরে উচ্চশিক্ষা

স্টুডেন্ট ভিসা দেশে দেশে

ভাষা দক্ষতা কেমন লাগে?

এ পর আপনার যা লাগবে সেটি হল ভাষার দক্ষতা। আমেরিকা, কানাডা, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া প্রভৃতি দেশের প্রধান ভাষা যেহেতু ইংরেজি তাই ইংরেজিতে দক্ষ হতে হবে। যেহেতু পৃথিবীর প্রায় সকল দেশই নিজদেশের ভাষা অথবা আন্তর্জাতিক ভাষা ইংরেজি ভাষায় পড়াশোনা করতে হয়।
সুতরাং বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের জন্য প্রয়োজন ভাষাগত দক্ষতা। আন্তর্জাতিক ভাষা হিসেবে প্রায় পৃথিবীর সব দেশেই ইংরেজী মাধ্যমে পড়াশোনা করা যায়। তাই বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের ইংরেজী বিষয়ে দক্ষতা থাকা প্রয়োজন। এমকি দেশেও প্রায় সকল সাবজেক্টে ইংরেজিতে পড়তে এবং লিখতে হয়। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন মাত্রায় স্কোর চাওয়া হয়। তবে বেশিরভাগই আইইএলটিএস (IELTS) স্কোর ৫.৫ থেকে ৬.৫। এবং টোফেল (TOEFL) স্কোর ৬০ থেকে ১০০ পর্যন্ত চায়। এছাড়াও কোন কোন ক্ষেত্রে জিআরই (GRE) অর্থাৎ- Graduate Record Examination, জিম্যাট (GMAT) অর্থাৎ- Grauate Management Admission Test, নিউস্যাট (NEWSAT) ইত্যাদি পরীক্ষার প্রয়োজন হয়ে থাকে।

বিদেশে পড়াশোনার খরচ কেমন?

বিদেশে উচ্চশিক্ষা গ্রহণের জন্য যে পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন হবে, শুরুতেই নিশ্চিত হোন আপনার পরিবার সে খরচের যোগান দিতে পারবে কি না। এছাড়া যদি অন্য কেউ আপনার ব্যয়ভার বহন করে তাহলে তার সঙ্গে আপনার রক্তের সম্পর্ক কি না তা নিশ্চিত হোন । কারণ, ভিসা অফিসের অফিসার চান শিক্ষার ব্যয়ভার বহনকারীর সঙ্গে যেন শিক্ষার্থীর রক্তের সম্পর্ক থাকে। এবং আর্থিক সচ্ছলতার প্রমাণস্বরূপ প্রতিটি দূতাবাসেই ব্যাংক সলভেন্সি সার্টিফিকেট জমা দিতে হয়। যা সংশ্লিষ্ঠ ব্যাংক থেকে গ্রহণ করতে হয়। দূতাবাসের নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রে মেডিকেল সার্টিফিকেট প্রদানও করতে হয়।

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

Looking to Move to the US Or Study USA ? Lucky for you, your dream may become a reality! Thanks to the green card lottery anyone from an eligible country can become the lucky winner […]

কোন দেশের স্টুডেন্ট ভিসা নেবেন?

আপনি বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য স্কলারশিপ পাবেন কিনা এর উপর ভিত্তি করে দেশ নির্বাচ করা উচিৎ। কারণ বিদেশে পড়ালেখার সাথে ব্যায়ের সম্পর্ক রয়েছে। যদি স্কলারশিপ পেয়ে যান, তাহলে বিশ্বের এক নম্বর দেশের ওয়ার্ল্ড র‌্যাংকিং এ এক নম্বর বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যেতে অসুবিধা নাই।
কিন্তু যদি স্কলারশিপ না পান। অথবা আংশিক স্কলারশিপ পান সেক্ষেত্রে আপনার সামর্থ অনুযায়ি দেশ নির্বাচন করা উচিৎ।

কারণ, আমেরিকায় সাধারণত গ্রাজুয়েট লেভে পড়তে বছরে বিশ লাখ টাকা লাগে। কানাডায় বছরে পনের লাখ টাকা লাগে।
অস্ট্রেলিয়া ও ইউকেতে পনের থেকে আঠারো লাখ টাকা লাগে। মালয়েশিয়া, চায়না ও ইন্ডিয়ায় মোটামুটি বাংলাদেশের
প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর মতই পড়া লেখার খরচ।

সঠিক কোর্স নির্বাচন করবেন কিভাবে?

গ্রাজুয়েট, পোস্ট গ্রাজুয়েট ও পিএইচ.ডি ডিগ্রীসহ উচ্চতর সকল প্রোগ্রামেই কোর্স নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমান গ্লোবালাইজেশনের যুগে উচ্চশিক্ষার অনেক কোর্সের মধ্যে আপনাকে এমন একটী কোর্স বেছে নিতে হবে যা আপনার ভবিষ্যৎ পেশাগত দক্ষতার পূর্ব প্রস্তুতি হিসাবে গণ্য হবে।
তাছাড়া বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য আপনি একেবারে একটি নতুন বিষয়ও বেছে নিতে পারেন। আমাদের দেশে প্রচলিত নয় কিন্তু বিশ্ব প্রেক্ষাপটে গুরত্বপূর্ন এবং চাহিদা সম্পন্ন এরকম কোন বিষয়কেও আপনি পছন্দ করতে পারেন। তবে সাধারন বিদেশের পাশাপাশি আমাদের দেশও যথেষ্ট চাহিদা আছে এরকম কোন কোর্সকে উচ্চশিক্ষার নির্বাচন করাই শ্রেয়।

আরো পড়ুন- বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির জন্য সকল সাবজেক্ট এর তালিকা…

কীভাবে স্টুডেন্ট ভিসা প্রসেসিং করবেন?

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়ার পর তাদের পাঠানো অফার লেটার বা ভর্তির অনুমতিপত্রে উল্লেখিত ডেডলাইনের মধ্যেই প্রতিষ্ঠানে পৌছাতে হবে। অন্যথায় ভর্তি বাতিল হবে। তাই নির্দিষ্ট তারিখের পূর্বে আপনাকে সেদেশের ভিসা সংগ্রহ করতে হবে। ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে কিছুটা পার্থক্য থাকলেও প্রায় সব নিয়মই এক রকম। কোন দেশে ভিসা পেতে হলে প্রথমে সে দেশের ভিসার আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হয়।
কোন কোন ক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই ভিসার আবেদনপত্র সরবরাহ করে থাকে। তা না হলে নির্দিষ্ট দূতাবাস থেকে ভিসার আবেদনপত্র সংগ্রহ করে সঠিক তথ্য দিয়ে নির্ভুল ভাবে প্রয়োজনীয় সকল কাগজপত্রসহ দূতাবাসে জমা দিতে হবে এবং নির্দিষ্ট দিনে ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে ভিসা সংগ্রহ করতে হবে। ভিসার জন্য সাধারনত যে সব কাগজপত্র লাগে-

  • শিক্ষাগত কাগজপত্রঃ সনদপত্র, নম্বরপত্র, প্রতিষ্ঠান প্রধানের প্রশংসাপত্রের সত্যায়িত ফটোকপিসহ মূলকপি।
  • পাসপোর্টঃ পাসপোর্টের মেয়াদ কমপক্ষে ১ বছর থাকতে হবে এবং পেশা, জন্ম তারিখ ও অন্যান্য সকল তথ্যের সাথে শিক্ষাগত
    কাগজ পত্রের মিল থাকতে হবে। আপনার পাসপোর্ট করা না থাকলে পাসপোর্ট করে নিন।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তির প্রমানপত্র বা অফার লেটার।
  • আর্থিক সামর্থ্যের প্রমানপত্রঃ আবেদন ও ভর্তি প্রসেসিং অংশে এ সম্পর্কে বিস্তারিত দেখে নিন।
  • ছবিঃ সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডে, পরিস্কার ভদ্র পোশাকে তোলা স্মার্ট ও স্পষ্ট ছবি হলে ভাল হয় এবং রঙ্গিন হওয়াই উত্তম।
  • টিউশন ফি’র ব্যাংক ড্রাফটঃ প্রতিষ্ঠান ভেদে টিউশন ফি ভিন্ন হয়ে থাকে।
  • ভাষাগত দক্ষতার প্রমানপত্রঃ আবেদন ও ভর্তি প্রসেসিং অংশে দেখুন।
  • পুলিশ ছাড়পত্রঃ পুলিশ ছাড়পত্রের জন্য নিজ নিজ থানায় যোগাযোগ করে একটি নির্দিষ্ট ফি প্রদানের মাধ্যমে এটি সংগ্রহ করা যায়।
    তবে আপনার বিরুদ্ধে দেশ ও আইনবিরোধী কন কাজে জরিত থাকের অভিযোগ থাকলে আপনি পুলিশ ছাড়পত্র পাবেন না।

কোন দেশে বিনা বেতনে পড়াশোনার সুযোগ আছে?

বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ইউনিভার্সিটিগুলোতে নাম মাত্র ব্যয়ে অথবা বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুযোগ রয়েছে জার্মানীতে। জার্মান সরকার তাদের বাজেটের একটি বিরাট অংশ ব্যয় করে শিক্ষা ক্ষাতে। তাই এখানে স্কলারশিপসহ অনেক ভালো মানের শিক্ষা লাভ করা যায়। আপনি যদি স্কলারশিপ নাও পান, তবে গ্রাজুয়েট কোর্সের জন্য প্রতি বছর মাত্র ৩৫০০ ডলার খরচ হবে।

উত্তর পূর্ব ইউরোপের স্ক্যান্ডেনেভিয়ান পাঁচটি দেশ (ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, আইসল্যান্ড, নরওয়ে, সুইডেন) এ দেশ গুলোতেও খুব সুবিধা নিয়ে পড়ালেখা করা যায়। যেমন, নরওয়েতে বিশ্বমানের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ব্যাচেলর, মাস্টার্স ও পিএইচডি স্তরে উচ্চশিক্ষা একদম ফ্রি, সেক্ষেত্রে নরওয়েজিয়ান ভাষায় দক্ষতাকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। ডেনমার্ক ও ফিনল্যান্ডেও বিভিন্ন স্কলারশিপের ব্যবস্থা রয়েছে । এ সব বৃত্তির মাধ্যমে বিনামূল্যে পড়ালেখা ছাড়াও থাকা-খাওয়ার জন্য বৃত্তি পাওয়া যায়। তবে এসব সুবিধা সাধারণত স্নাতকোত্তর কিংবা পিএইচডি ডিগ্রীর জন্য দেওয়া হয়।

স্টুডেন্ট ভিসার পরামর্শ চান?

তাহলে গুগল ফরম টি পুরন করুন এখনি… এখানে ক্লিক করুন

রেজিস্ট্রেশন করুন

অথবা যোগাযোগ করুন এখানে…

আমাদের ফেসবুক গ্রূপ যুক্ত হোন:
স্টুডেন্ট ভিসা সম্পর্কে যোগাযোগ করতে স্টূডেন্ট ভিসা হেল্পলাইন ফেসবুক গ্রুপ এ জয়েন করুন।
এই গ্রুপে পাবেন সকল দেশের স্কলারশিপ তথ্য। আবার মতামত ও প্রশ্ন করতে পারবেন যে কোন সময়।
গ্রূপ লিংক: www.facebook.com/groups/studentvisahelpline

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]

বিদেশে পড়াশোনার পাশাপাশি পার্টটাইম কাজের সুযোগ আছে কি?

বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশে শিক্ষার্থীদের জন্য পার্টটাইম কাজের সুবিধা আছে। এ সুবিধাটি আমাদের মতো দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই প্রয়োজন।
সেসব দেশের বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজগুলোতে সপ্তাহে ২০ ঘণ্টা (ঘণ্টাভিত্তিক পারিশ্রমিক সুবিধায়) কাজ করার সুবিধা আছে।
এ সুবিধা শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার খরচের একটা বড় অংশের যোগান দেয়। সে দেশে যাওয়ার পরই এসব সুবিধা গ্রহণের পথ খুঁজে পাবেন।

কানাডায় উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ

বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য বর্তমানে কানাডায় উচ্চশিক্ষা একটি স্বপ্ন। কারণ, কানাডার আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যা
অনেক কম তাদের প্রচুর মানব সম্পদ দরকার এজন্য লেখাপড়া শেষ করে পার্মানেন্ট হওয়ার জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাপক
সুযোগ সুবিধা দেয়া হয়। শুধু তাই নয় কানাডায় পড়াশোনা চলাকালীন পার্ট টাইম জব করার সুযোগও রয়েছে। তবে পার্ট টাইম জব
করে পড়াশোনার খরচ চালানো সম্ভব কি না? কানাডায় যাওয়ার জন খরচ কেমন লাগবে? কোন প্রদেশে পড়াশোনা করা ভালো, থাকা খাওয়ার খরচ কেমন? এ বিষয় গুলো
কানাডার বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আগেই জেনে নিতে হবে। আর তা না হলে কানাডা যাওয়ার পর বিপদেও পড়তে পারেন। তাই গিয়া ভাবভার আগে ভাবিয়া কানাডা যান।
কানাডায় স্টুডেন্ট ভিসা সম্পর্কে জানুন বিস্তারিত…

ইউকে স্টুডেন্ট ভিসা ২০২৩

আপনি কি ইউকেতে পড়াশোনার জন্য আগ্রহী? এটা নিয়ে কি আপনার মনে অনেক প্রশ্ন? আর কোন চিন্তা নেই, আমরা আছি আপনার সকল প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য। যাতে করে আপনি আপনার মেধা কাজ লাগিয়ে সফলভাবে ইউকে স্টুডেন্ট ভিসা পেতে পারেন সে জন্যই আমরা আছি আপনার পাশে। আইএলটিএস ছাড়াই সরাসরি ইউকেতে গ্রাজুয়েশন পোস্ট গ্রাজুয়েশন করা সম্ভব একটি ব্যাপার।
এবং প্রসেসিংয়ের সময় মাত্র দুই মাস। তাই স্বপ্ন পূরণে আর দেরি না করে আজই চলে আসুন আমাদের অফিসে। অথবা যোগাযোগ করুন নিচের মোবাইল নাম্বারে। আমরা আপনাকে দেব সঠিক
স্টুডেন্ট ভিসা ইনফর্মেশন, ফিনান্সিয়াল গাইডেন্স, স্টেটমেন্ট অফ পারপাস, অ্যাপ্লিকেশন সাবমিশন টেকনিক ও ইউকে স্কলার্শিপ ২০২১।
বিস্তারিত যোগাযোগ...

অস্ট্রেলিয়ায় স্টুডেন্ট ভিসা

এশিয়ার দক্ষিণ-পূর্বে ওশেনিয়া অঞ্চলে অবস্থিত বারো হাজারেরও বেশি সমুদ্র সৈকত বিশিষ্ট, অর্থনীতিতে সমৃদ্ধশালী, খেলাধূলায় অগ্রসর এই
দেশটি তরুণ শিক্ষার্থীদের কাছে অন্যতম জনপ্রিয় গন্তব্য। তাছাড়া দেশটি শিক্ষাব্যবস্থা, গবেষনা, উদ্ভাবন, জীবনযাত্রার মান ও বসবাসের দিক থেকে সেরা।
আর সব মিলিয়ে অন্যতম শান্তিপূর্ণ দেশ হিসেবেও বিবেচিত অস্ট্রেলিয়া। তাই তো প্রতি বছর পৃথিবীর নানা প্রান্ত থেকে সাত থেকে আট লক্ষাধিক শিক্ষার্থী পাড়ি জমায় অস্ট্রেলিয়াতে। অস্ট্রেলিয়ায় উচ্চশিক্ষা গ্রহণ অনেকটা ব্যয় বহুল হলেও স্কলারশিপ নিয়ে এই দ্বীপ দেশটিতে পাড়ি জমাতে পারেন আপনিও।
বিস্তারিত অস্ট্রেলিয়ায় স্টুডেন্ট ভিসা…

মালয়েশিয়ায় উচ্চশিক্ষা

অবশ্যই মালয়েশিয়া স্বল্প খরচে থাকা ও পড়াশোনার জন্য অন্যতম একটি দেশ। মালয়েশিয়ার রাজধানী কুয়ালালামপুর বেস্ট স্টুডেন্ট সিটিজ ক্যাটাগরিতে ২০১৬ সবচেয়ে সাশ্রয়ী শহরের মর্যাদা লাভ করেছে। মালয়েশিয়ায় উচ্চশিক্ষার মান খুবই উন্নত। মালয়েশিয়া থেকে লেখাপড়া করে পৃথিবীর যেকোন দেশে চাকুরী অথবা পরবর্তী পর্যায়ের লেখাপড়ার জন্য যাওয়ার সুযোগ রয়েছে।
মালয়েশিয়ায় কম্পিউটার সাইন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, এমবিবিএস, বিবিএ, এম.বিএ. পিএইচ.ডিসহ প্রায় সকল বিভাগে পড়ালেখার সুযোগ রয়েছে।
মালয়েশিয়াতে পড়াশোনার সকল বিষয় জানতে আরও পড়ুন- মালয়েশিয়ায় উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ এটুজেড…

চায়না স্কলারশীপ উচ্চশিক্ষা ২০২৩

চায়নাতে ১ থেকে ৫০০ এর মধ্যে অবস্থিত অবস্থিত সকল ইউনিভার্সিটি তে স্টাডি করতে পারেন এবং চায়নার লিভিং কস্ট বাংলাদেশের মতোই। আপনি সেখানে থাকলে চাইনিজ ল্যাঙ্গুয়েজ এবং চাইনিজ কালচার এবং খাবার-দাবার রপ্ত করতে পারবেন এবং যেটি পরবর্তীতে আপনার জীবন চলার ক্ষেত্রে বিভিন্ন কাজে লাগবে। ভবিষ্যৎ পৃথিবীর জন্য চাইনিজ ল্যাঙ্গুয়েজ এবং সংস্কৃতি খুবই গুরুত্ববহ।চাইনিজ ল্যাঙ্গুয়েজ জানা থাকলে আপনি চায়নার বড় বড় কোম্পানির সঙ্গে চাকরি করতে পারবেন এবং বাংলাদেশও অনেক চাইনিজ কোম্পানি এবং চাইনিজ বিনিয়োগ এবং চাইনিজ অফিসার রয়েছে এবং আপনি চাইনিজ ভাষা জানলে সেগুলোতে কাজ করতে পারবেন চাকরি করতে পারবেন অথবা তাদের সঙ্গে ব্যবসা করতে পারবেন।
চায়না স্কলারশিপ ও পড়াশোনা বিস্তারিত…

ভারতে উচ্চশিক্ষা

ভারতীয় সরকার থেকে বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ বৃত্তির ব্যবস্থা করেছে। এছাড়া বেসরকারী বিশশ্ববিদ্যালয়ে বৃত্তির
ব্যবস্থা কম থাকলেও ভাল ফলাফল সাপেক্ষে আংশিক স্কলারশিপের ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু এসব বিশ্ববিদ্যালয়ের খরচ
ইউরোপ কিংবা আমেরিকার তুলনায় অনেক কম। তাছাড়া থাকা খাওয়ার খরচও অন্যান্য দেশের তুলনায় অনেক সস্তা।
ভারতে উচ্চশিক্ষা বিস্তারিত…

অস্ট্রিয়ায় পড়ালেখা

আইনস্টাইন যে শহরে পড়ালেখা করেছেন অস্ট্রিয়ার রাজধানী সেই ভিয়েনা বিশ্বের অন্যতম শিক্ষার্থীবান্ধব শহর বলে বিবেচিত।
এ দেশটিতে পড়াশোনা করা যায় অপেক্ষাকৃত কম খরচে। ইউরোপীয়দের জন্য যেখানে সেমিস্টার ফি ৪৫০ ডলার,
সেক্ষেত্রে অন্যদের জন্য ৭০০ ডলারের মতো, যা উন্নত অনেক দেশের তুলনায় কম।

তাইওয়ান পড়ালেখা

এশিয়ার দ্বীপরাষ্ট্র তাইওয়ানও শিক্ষার দিক দিয়ে বেশ অগ্রসর। দেশটিতে লিবারেল আর্টসের যে কোনো বিষয়ে পোস্টগ্র্যাজুয়েট করতে প্রায় ৩ হাজার ইউএস ডলার লাগে। তা ছাড়া জীবনযাত্রার খরচও তুলনামূলক অনেক কম। প্রতিবছর আবাসনের পেছনে গড়ে ২ হাজার ৩৩০ ইউএস ডলার ব্যয় হয় এই দেশটিতে। বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় উপরের দিকে রয়েছে দেশটির বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান। শিক্ষার্থী বান্ধব শহরের মধ্যে শীর্ষ ২০ এর একটি তাইওয়ানের রাজধানী তাইপে। এছাড়া তো আছেই সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের নামমাত্র খরচে পড়ালেখার সুযোগ ও স্কলারশিপ।

ইতালিতে পড়ালেখা

ইতালিতে একাডেমিক সাফল্যের সাথে বিভিন্ন যোগ্যতাকেও প্রাধান্য দিয়ে ছাত্রবৃত্তি, লোন, বেতন হ্রাসের ব্যবস্থা করে তারা। থাকা-খাওয়ার জন্য খরচ ইউরোপীয় দেশের তুলনায় বেশি।
এখানে বছরে ১৪ হাজার ডলারের মত লাগে। রাজধানী রোম, বিখ্যাত শহর মিলান ছাড়াও আরো বেশ কিছু শহরে
অবস্থিত বিশ্ববিদ্যালয়সূহ বাংলাদেশ ও ভারতের শিক্ষার্থীদের জন্য পছন্দের জায়গা।

গ্রিসে পড়ালেখা

গ্রিসে সরকারী ইউনিভার্সিটিতে বিনা টিউশন ফিতে বা অল্প খরচে উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে। তবে সেটা ব্যাচেলর লেভেলে, মাস্টার্সে নয় ।
কিন্তু ব্যাচেলর প্রোগ্রামের বেশিরভাগই গ্রীক ভাষায় অধ্যায়ন করতে হয়। তবে, কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যাচেলর ও
মাস্টার্স পর্যায়ে ইংরজিতেও উচ্চশিক্ষার সুযোগ রয়েছে।

পোল্যান্ড পড়ালেখা

আপনি যদি পোলিশ ভাষায় পারদর্শী হন এবং পোলিশ ভাষায় আপনার কোর্স এনরোল করেন, তাহলে অন্য সকল পোলিশ শিক্ষার্থীর মতো আপনিও বিনামূল্যে অধ্যায়ন করতে পারবেন। ইংরেজিতেও আপনার ডিগ্রি অর্জনের সুযোগ আছে এই দেশটিতে।
তবে, সেক্ষেত্রে আপনার প্রতি বছরে প্রায় ২ হাজার ১৮৫ থেকে ৩ হাজার ২৮০ ইউএস ডলার ব্যয় হবে।

স্টুডেন্ট ভিসা ২০২৩ চেক লিস্ট:

বিদেশে উচ্চশিক্ষার জন্য যাওয়ার আগে নিচের বিষয় গুলো সম্পন্ন করেছেন কিনা, মিলিয়ে নিন। আর তা না হলে বিপদেও পড়তে পারেন।
সুতরাং মনোযোগ সহকারে নিচের অংশটি পড়ুন।

  • ইংরেজীতে দক্ষতা অর্জন করা। তবে চীন, জাপান, জার্মানী, ফ্রান্স এসব দেশে যেতে চাইলে ঐ দেশের ভাষাটা শিখে নেয়া ভালো। প্রয়োজনে GRE, SAT, GMAT বা TOFEL প্রস্তুতি গ্রহণ করা।
  • সকল শিক্ষাগত যোগ্যতার সার্টিফিকেট ইংরেজীতে করিয়ে নিতে হবে।
  • পাসপোর্টে যাতে কোন সমস্যা না থাকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট হওয়া দরকার।
  • যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে চান তার খরচ জোগার করা। যদি কর্তৃপক্ষ মনে করে ব্যয়ভার বহন করা শিক্ষার্থীর পক্ষে সম্ভব নয়,
    তাহলে ভিসা মিলবে না।
  • কোন এডুকেশন কনসালটেন্সি ফার্মের মাধ্যমে প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে চাইলে আগে তাদের সম্পর্কে খোঁজ খবর নেয়া।

বাংলাদেশের বিদেশে উচ্চশিক্ষা বিষয়ক কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠান সমূহ

বাংলাদেশে বেশ কিছু স্টুডেন্ট ভিসা কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠান আছে। এর মধ্যে অবশ্যই ভালো-খারাপ আছে। যদি আপনি সত্যিই প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে চান,
এবং দৃঢ় সিন্ধান্ত নেন পড়াশোনার জন্য বিদেশে যাবেন তাহলে ভালোভাবে যাচাইবাছাই করে কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠানের সহায়তা নিন।
আগে ভেবে দেখুন আপনার যোগ্যতা, অর্থনৈতিক সামর্থ্য, উদ্দেশ্য, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা অনুযায়ী কোর্স ও ইউনিভার্সিটি ঠিক আছে কিনা। অন্যথায় কারো প্ররোচনায় পড়ে
আপনার যে যোগ্যতা নেই সেই অফার নিয়ে বিদেশে পড়তে গেলে কিন্তু সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি!
ফ্লাই করার পূর্বে বিদেশী বিশ্ববিদ্যালয় ও সংশ্লিষ্ট দেশের জীবন যাত্রা সম্পর্কে বিস্তারিত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়।
যাতে করে বিদেশ যাওয়ার পর স্টুডেন্টকে কোনো ভোগান্তিতে পড়তে হয় না। সর্বপরি আমার সাথে যোগাযোগ করে বিদেশে উচ্চশিক্ষা পরামর্শ সেবা নিতে পারেন।

ট্যাগ: বিদেশে উচ্চশিক্ষা, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও ভিসা তথ্য, বিদেশে উচ্চশিক্ষা কেন করব, বিদেশে উচ্চশিক্ষা, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ ২০২৩, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ ২০২৩, বিদেশে উচ্চশিক্ষা বৃত্তি, বিদেশে উচ্চশিক্ষা প্রথম আলো, বিদেশে উচ্চশিক্ষার যোগ্যতা, এইচএসসির পর বিদেশে উচ্চশিক্ষা, এইচএসসির পর বিদেশে উচ্চশিক্ষা
বিদেশে উচ্চশিক্ষার যোগ্যতা, কম সিজিপিএ নিয়ে বিদেশে উচ্চশিক্ষা।
online seminars with a certificate, online seminars free, online seminars for students, ফ্রি অনলাইন সেমিনার, উচ্চশিক্ষার জন্য সেমিনার।
বিদেশে উচ্চশিক্ষা, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও ভিসা তথ্য, বিদেশে উচ্চশিক্ষা কেন করব, বিদেশে উচ্চশিক্ষা, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ ২০২১, বিদেশে উচ্চশিক্ষা ও স্কলারশিপ ২০২১, বিদেশে উচ্চশিক্ষা বৃত্তি, বিদেশে উচ্চশিক্ষা প্রথম আলো, বিদেশে উচ্চশিক্ষার যোগ্যতা, এইচএসসির পর বিদেশে উচ্চশিক্ষা

প্রিয় স্টুডেন্ট ও অভিভাবক, এই সময়ে প্রথিবীর যেকোনো দেশে স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে পড়তে যাওয়া বাংলাদেশী ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য খুবই দরকার। এবং করোনা পরিস্থিতির পর স্টুডেন্ট ভিসা
আগের চেয়ে অনেক সহজ হয়েছে। এই সুযোগ ভবিষ্যতে নাইও থাকতে পারে। তাই আপনার উজ্বল ভবিষ্যতের জন্য এখই বিদেশে উচ্চশিক্ষার সিন্ধান্ত নিন।

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি ও স্কলারশিপের আবেদন এর নিয়ম

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ৬ স্কলারশিপের আবেদনের নিয়ম

২০২৩-২০২৪ বিশ্বসেরা ইউনিভার্সিটিতে ভর্তি ও স্কলারশিপের আবেদন এর নিয়ম;

উচ্চশিক্ষা গ্রহণে দেশের বাইরে যাওয়ার স্বপ্ন সবারই থাকে। কেউ হয়তো সুযোগ পান, কেউ পান না। কারণ বিদেশে পড়তে যাওয়ার খরচ অনেক। এ জন্যই মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কলারশিপের জন্য অপেক্ষায় থাকেন। ভাগ্যগুণে যদি স্কলারশিপ কেউ পেয়ে যান, তবে তার জীবন সার্থক।

সম্প্রতি বিশ্বসেরা ৬টি স্কলারশিপের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। এসব স্কলারশিপে আবেদন করার পর বিভিন্ন ধাপে পরীক্ষা দিতে হবে। তারপর যদি ভাগ্য ভালো থাকে, তবেই বিনা মূল্যে পড়ার সুযোগ পাবেন।

আবার অনেক সময় আইএলটিএস বা টোফেল বিদেশে পড়তে যাওয়ার ক্ষেত্রে বিরাট বাধা হয়ে দাঁড়ায়। তবে জানলে অবাক হবেন, বিশ্বসেরা ৬টি বৃত্তির বিজ্ঞপ্তিতে কোনো কোনো ক্ষেত্রে এসবও লাগবে না।

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now

2023-2024 Top List of Global Scholarships, Grants, and Fellowships for International Students; Apply Online Now Top 25 Scholarships in Sweden for International Students: Up until 2010,  Sweden has been one of the few countries in Europe

আন্ডার গ্রাজুয়েট, মাস্টার্স এবং পিএইচডির ক্ষেত্রে স্কলারশিপ দেওয়া হয়। এসব বৃত্তির কয়েকটিতে চলতি মাসে এবং কয়েকটি আগামী মাস পর্যন্ত সময় নির্ধারিত রয়েছে। এ সময়ের মধ্যেই আবেদন করতে হবে।

শুধু বিনা মূল্যে পড়ার সুযোগ নয়, সঙ্গে স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা পাবেন নানা সুযোগ-সুবিধা। প্রতিবছর ৪ হাজার ৬০০ কোটি মার্কিন ডলারের এসব বৃত্তিতে শিক্ষার্থীরা টিউশন ফি, মেডিকেল ফি, ভিসা ফি এবং মাসে হাতখরচের অর্থও পান। জেনে নিন এসব স্কলারশিপ সম্পর্কে-

ক্যামব্রিজ গেটস স্কলারশিপ: যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় বিভিন্ন সময়ে বিশ্বব্যাপী নানা বৃত্তি দেয়। এ বছরের জন্য বিশ্বের অন্যতম এ প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয়টি দিচ্ছে গেটস ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় স্কলারশিপ। মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস ও তার স্ত্রী মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশন এ বৃত্তির জন্য অর্থায়ন করে থাকে।

ডিপ্লোমা, মাস্টার্স ও পিএইচডির জন্য এ বৃত্তি দেওয়া হয়। এ মাসের শেষদিন পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। স্কলারশিপপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা ১ বছরে সাড়ে ১৭ হাজার পাউন্ড পাবেন। এর সঙ্গে বিমানের যাওয়া-আসার টিকিটও পাবেন। কোর্সভেদে অনেকে ৫০০-২০০০ হাজার পাউন্ড পাবেন।

ভিসা ও স্বাস্থ্যবীমার সুবিধাও রয়েছে। বিবাহিতরা যেমন সুযোগ-সুবিধা পাবেন; তেমনি সন্তান থাকলেও তার ভরণ-পোষণের জন্য ভাতা পাবেন। বছরে ১০ হাজার ১২০ পাউন্ড পাবেন প্রথম সন্তানের জন্য। আর দ্বিতীয় সন্তানের জন্য পাবেন ৪ হাজার ৩২০ পাউন্ড। ফিল্ডওয়ার্কের জন্য পিএইচডির শিক্ষার্থীরা পাবেন আলাদা অ্যালাউন্স। এ ছাড়া মাতৃত্ব ও পিতৃত্বকালীন অর্থের ব্যবস্থা আছে। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

কমনওয়েলথ বৃত্তি: নিম্ন ও মধ্যম আয়ের দেশগুলোর শিক্ষার্থীদের যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপে মাস্টার্সে পড়াশোনা করার সুযোগ করে দেয় কমনওয়েলথ বৃত্তি। ২০২১ সালের জন্য কমনওয়েলথ স্কলারশিপের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। কমনওয়েলথ বৃত্তির জন্য কোনো আবেদন ফি নেই।

Tuition Free Universities in Canada; Apply for admission 2023-2024

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission

Tuition Free Universities in Canada; Apply for 2023-2024 Admission Studying a professional course in any tuition free universities in Canada has been seen as something most people has seen as inexpensive compared to other countries

মাস্টার্সের জন্য ১ বছর এবং পিএইচডির জন্য ৩ বছরের কমনওয়েলথ বৃত্তি দেওয়া হয়। কমনওয়েলথভুক্ত ৫৪ দেশের শিক্ষার্থীরা এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারেন। আগামী ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করা যাবে। এখন পর্যন্ত বিশ্বের ২৭ হাজার ৮০০ জন কমনওয়েলথ বৃত্তি পেয়েছেন। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

আজারবাইজান সরকারি বৃত্তি: এ বৃত্তি যেকোনো বিষয়ের ওপর দেওয়া হবে। স্কলারশিপটি পেলে বিনা মূল্যে পড়ার পাশাপাশি মিলবে মাসিক হাতখরচও। ওআইসিভুক্ত এবং ন্যামভুক্ত দেশগুলোর শিক্ষার্থীরা আন্ডার গ্রাজুয়েট, মাস্টার্স ও পিএইচডি ডিগ্রির জন্য আবেদন করতে পারবেন। ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করা যাবে। আইইএলটিএস ও টোফেল লাগবে না এ বৃত্তির আবেদনে। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

হাম্মাদ বিন খলিফা ইউনিভার্সিটি স্কলারশিপ: এ বছর স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও পিএইচডির জন্য আবেদন করা যাবে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে। দোহায় অবস্থিত এ বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপ পেতে আইএলটিএস বা টোফেল লাগবে না। হাম্মাদ বিন খলিফা ইউনিভার্সিটির বৃত্তির জন্য বিশ্বের অন্য দেশের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কাতারের শিক্ষার্থীরাও আবেদন করতে পারবেন।

এ বছরের ১ ফেব্রুয়ারির মধ্য এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে হবে। তবে কাতারের শিক্ষার্থীরা আবেদনের জন্য আরও কিছুদিন সময় পাবেন। স্নাতকে পড়ার জন্য আবাসনের সঙ্গে পাঁচ হাজার কাতারি রিয়েল পাবেন আবেদনকারী। আর সঙ্গে মিলবে বিমান টিকিট।

এসএস পড়ার জন্য এ বৃত্তি পেলে আবাসন, পাঁচ হাজার কাতারি রিয়েল ও সঙ্গে বিমান টিকিট পাবেন প্রার্থীরা। পিএইচডির ক্ষেত্রে অর্থ বাড়বে। আবাসন ও বিমান টিকিটের সঙ্গে পাবেন ৭ হাজার ৫০০ কাতারি রিয়েল। বিবাহিতদের জন্যও সুযোগ রয়েছে পরিবার নিয়ে থাকার। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

STUDY USA | 2024 & 2025 DIVERSITY VISA | GREEN CARD LOTTERY REGISTRATION PERIOD

Looking to Move to the US Or Study USA ? Lucky for you, your dream may become a reality! Thanks to the green card lottery anyone from an eligible country can become the lucky winner

ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট উন্নয়ন ব্যাংক স্কলারশিপ: বিনা মূল্যে স্নাতক, মাস্টার্স, পিএইচডি ও পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা প্রোগ্রাম অধ্যয়নের জন্য ইসলামি উন্নয়ন ব্যাংক স্কলারশিপ চালু করেছে। এ স্কলারশিপের আবেদনের জন্য কোনো ফি পর্যন্ত নেওয়া হয় না। প্রায় সব বিষয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর, পিএইচডি প্রোগ্রামে বৃত্তি দেয় আইডিবিএস।

নারী ও পুরুষ উভয়ই আইডিবিএস বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এ বৃত্তির জন্য আবেদন করা যাবে। মুসলিম বিশ্বের ৫৭টি দেশের শিক্ষার্থীরা এ বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে

সাস্কাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয় বৃত্তি: এমএস ও ডক্টরাল ডিগ্রির জন্য কানাডার সাস্কাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ে স্কলারশিপ দেওয়া হবে। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য কানাডার একটি জনপ্রিয় বৃত্তি এটি। সাস্কাচুয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের এ বৃত্তি পেলে পড়াশোনার মাধ্যম হবে ইংরেজি। আবেদনের শেষ তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি। পিএইচডির জন্য ২০ হাজার ডলার দেওয়া হবে। আর মাস্টার্সের জন্য দেওয়া হবে ১৬ হাজার ডলার। বিস্তারিত জানা যাবে এ লিংকে ।

Canada Visa Help 2023-2024; Apply Online Now

2023-2024 CANADA Visa – Application and Complete Guidelines: Apply Online Now

Canada is a country in the North American continent located right above the United States and is known as a highly developed country. The demand for people to travel to Canada has been steadily increasing […]